1. uddoktarkhoje@gmail.com : uddoktarkhoje :

নতুন উদ্যোক্তারা যেভাবে লোন পাবেন!

চাকরির পেছনে না ছুটে চাকরিদাতার হওয়ার জন্য দৌড়াদৌড়ি দেশের উন্নয়নে সহায়ক। একজন উদ্যোক্তা নিজের জীবিকার পাশাপাশি কয়েক জনের জীবিকার ব্যবস্থা করতে পারেন। কিন্তু উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য প্রয়োজন অর্থের। এ অর্থের জোগান পাওয়া যাবে ব্যাংক থেকে। ক্ষুদ্র শিল্প প্রতিষ্ঠায় পাওয়া যাবে বিনা জামানতে ঋণ। মাঝারি শিল্প প্রতিষ্ঠায় মিলবে সহজ শর্তে স্বল্প সুদের ঋণ। নতুন উদ্যোগ প্রতিষ্ঠা করতে গিয়ে মোট খরচের মাত্র ২০ শতাংশ উদ্যোক্তাকে বহন করতে হবে; বাকি ৮০ শতাংশ খরচে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়া যাবে।

বর্তমানে দেশে ৫৭টি ব্যাংক কর্মরত রয়েছে। সারা দেশে সাড়ে ৯ হাজারের বেশি শাখা রয়েছে। সবগুলো ব্যাংকই এসএমই ঋণ বিতরণ করছে। এসএমই ঋণকে আরও সহজলভ্য ও উদ্যোক্তাবান্ধব করার জন্য বাংলাদেশ ব্যাংক গঠন করেছে বিশেষ পুনঃঅর্থায়ন তহবিল। এ তহবিল থেকে ঋণ নিলে সর্বোচ্চ সুদহার মাত্র ১০ শতাংশ। এতে বাংলাদেশ ব্যাংকের তহবিল ব্যবহারে করে ঋণ দিতে পারে ব্যাংকগুলো। এসএমই ঋণ সহজ করার জন্য পুরো প্রক্রিয়া নির্ধারণ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এ জন্য বাংলায় সুনির্দিষ্ট আবেদনপত্র রয়েছে। যে কোনো ব্যাংক থেকে ওই আবেদনপত্র সংগ্রহ করে ঋণের জন্য আবেদন করা যাবে। আবেদনপত্রের সঙ্গে ট্রেড লাইসেন্স, জাতীয় পরিচয়পত্র, ছবি, আয়কর ও ভ্যাট শনাক্তকরণ নম্বর, ব্যবসায়িক অন্যান্য ছাড়পত্র, প্রতিষ্ঠানসম্পর্কিত প্রয়োজনীয় তথ্য ও কাগজপত্র, উদ্যোগসম্পর্কিত সংক্ষিপ্ত বিবরণ, ব্যাংক অ্যাকাউন্টের বিবরণী, এসএমই উদ্যোগসম্পর্কিত প্রশিক্ষণের সনদপত্রসহ ব্যাংকের চাহিদা অনুসারে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করতে হবে।

স্বল্প সুদে ঋণ পেতে বাংলাদেশ ব্যাংক ৫ ধরনের পুনঃঅর্থায়ন তহবিল চালু করেছে। এসব তহবিলের সুদহার সর্বোচ্চ ১০ শতাংশ। নতুন ও পুরনো যে কোনো উদ্যোক্তা এসব তহবিল থেকে ঋণ নিতে পারবেন। এ ছাড়া নতুনদের জন্য আলাদা তহবিল রয়েছে। নারীদের উদ্যোক্তা হয়ে গড়ে ওঠার জন্য রয়েছে বিশেষ সুবিধা।

নিজস্ব এলাকায় কৃষিভিত্তিক শিল্প গড়ে তোলার জন্য রয়েছে একটি পুনঃঅর্থায়ন তহবিল। ৩৪টি ব্যাংক ও ২৩টি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এ তহবিল থেকে ঋণ নিতে পারবেন উদ্যোক্তারা। ব্যাংকগুলো হচ্ছে জনতা, রূপালী, ইস্টার্ন, ন্যাশনাল, ব্র্যাক, সাউথইস্ট, ট্রাস্ট, এবি, কমার্শিয়াল ব্যাংক অব সিলন, সিটি, প্রিমিয়ার, স্ট্যান্ডার্ড, ব্যাংক এশিয়া, এনসিসি, প্রাইম, ওয়ান, যমুনা, মিউচুয়াল ট্রাস্ট, আইএফআইসি, ঢাকা, বাংলাদেশ কমার্স, বিডিবিএল, পূবালী, এনআরবি কমার্শিয়াল, মিডল্যান্ড, সাউথ বাংলা, মেঘনা, ফারমার্স, এনআরবি, মধুমতি, মার্কেন্টাইল, এনআরবি গ্লোবাল, ইউসিবি ও উত্তরা ব্যাংক।

ক্ষুদ্র শিল্প প্রতিষ্ঠার জন্য গঠিত পুনঃঅর্থায়ন তহবিল থেকে স্বল্প সুদে ঋণ পাওয়া যাবে ৩৬টি ব্যাংক ও ২৭টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে। ফাইন্যান্সিয়াল সেক্টর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট থেকে এসএমইর জন্য একটি তহবিল গঠন করেছে। ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এ তহবিল থেকেও ঋণ নিতে পারবেন উদ্যোক্তারা।

নতুন উদ্যোক্তাদের ঋণ দিতে এসএমই খাতে নতুন উদ্যোক্তা পুনঃঅর্থায়ন তহবিল গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এ তহবিলের ঋণ পাওয়া যাবে ২৪টি ব্যাংক ও ১৫টি আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে। এ ছাড়া ইসলামী ব্যাংকগুলোও শরিয়া মোতাবেক তহবিল থেকে নতুন উদ্যোক্তাদের ঋণ বিতরণ করছে। শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক, এক্সিম, আল আরাফাহ, ফার্স্ট সিকিউরিটি ও ইউনিয়ন ব্যাংক থেকে শরিয়াভিত্তিক পুনঃঅর্থায়ন তহবিল থেকে ঋণ নিতে পারবেন উদ্যোক্তারা। এ ছাড়া ইসলামিক ফাইন্যান্স অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্টও এ তহবিল থেকে ঋণ বিতরণ করছে।

ঋণ আবেদন জমা দেওয়ার ১০ দিনের ঋণ দেওয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানাবে ব্যাংক। কটেজ, মাইক্রো ও ক্ষুদ্র উদ্যোক্তারা সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা, ক্ষুদ্র উদ্যোগে সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ পাওয়া যাবে। নারী উদ্যোক্তারা ব্যক্তিগত জামানতে ২৫ লাখ টাকা ও বিনাজামানতে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ নিতে পারবেন।

হারুন-অর-রশিদ
তথ্যসূত্র: আমাদের সময় ডটকম।

More News Of This Category