1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

এ্যাপল কোম্পানী মোজা তৈরীও করতো!

টেক জায়ান্ট অ্যাপল যে মোজা বানাত, তা কি জানেন? স্টিভ জবসের অ্যাপল সত্যিই বছর পনেরো আগে এমন পণ্য বের করেছিল। কোম্পানিটি ১৯৭৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এরপর থেকে লাগাতার নানান নিত্যনতুন পণ্য তৈরি করে গেছে অ্যাপল। এসবের তালিকায় আছে অ্যাপল ওয়াচ থেকে জামাকাপড়ও!

প্রায় ৪০ বছরের পুরোনো প্রযুক্তি কোম্পানি হলো অ্যাপল। এর প্রতিষ্ঠাতা স্টিভ জবস একসময় সন্তানসম প্রতিষ্ঠানকে ছেড়ে চলে গিয়েছিলেন। ১৯৯৭ সালে ফের অ্যাপলে ফিরে আসেন স্টিভ জবস। সেই থেকে কোম্পানিটির উত্থানের শুরু। একে একে বাজারে আসে আইম্যাক, আইপড, আইফোন ও আইপ্যাড।

এসব স্মরণীয় পণ্যের পাশাপাশি কিছু ভুলে যাওয়া স্বল্প পরিচিত পণ্যও তৈরি করেছিল অ্যাপল। বাজারে টিকতে না পেরে সেগুলো হারিয়ে গেছে। আসুন, জেনে নিই অ্যাপলের এমনই কিছু পণ্যের গল্প:

১. অ্যাপল আইপড বাই এইচপি
নাম শুনে নিশ্চয় অবাক হচ্ছেন! অ্যাপলের আইপডে আবার এইচপি এল কোত্থেকে। কিন্তু এসেছিল। আইপড শুধু অ্যাপল তৈরি করেনি। স্টোরিজ অব অ্যাপল জানাচ্ছে, ২০০৪ সালে হিউলেট-প্যাকার্ড (এইচপি) কোম্পানির সঙ্গে জুটি বেঁধেছিল জবসের অ্যাপল। এখন বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে যত অ্যাপল স্টোর আছে, ওই সময় এত বেশি ছিল না।

ফলে খুচরা বিক্রির ভালো ব্যবস্থা করতেই এইচপির দ্বারস্থ হয়েছিল অ্যাপল। অন্যদিকে, এমপিথ্রি প্লেয়ার তৈরি করতে চেয়েছিল এইচপি। কিন্তু এই যৌথ কারবার এক বছরের বেশি টেকেনি। এইচপির তৈরি আইপডের বিক্রয়োত্তর সেবা ও তা মেরামত করে দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছিল অ্যাপল।

২. অ্যাপল ম্যাকফোন
১৯৮২ সালের দিকে ম্যাকফোনের প্রোটোটাইপ তৈরি করেছিল অ্যাপল। এটি ছিল একধরনের ল্যান্ডফোন। এতে হালের ট্যাবলেটের একটি প্রাথমিক সংস্করণও যুক্ত ছিল। দ্য আটলান্টিকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ম্যাকফোনে একটি স্টাইলাস ছিল। এটি চলত ম্যাক অপারেটিং সিস্টেমে। অবশ্য পণ্যটি কখনোই বাণিজ্যিকভাবে বিক্রির জন্য বাজারে ছাড়েনি অ্যাপল। বিশেষজ্ঞদের মতো, আজকের আইফোনের পূর্বসূরি ছিল এই ম্যাকফোন।

৩. আইপড সকস
২০০৪ সালে এই মোজা বের করেছিল অ্যাপল। তবে এটি পায়ে পরার মোজা নয়। অ্যাপলের তৈরি গান শোনার জনপ্রিয় যন্ত্র আইপডকে ঢেকে রাখতে এসব ছোট আকারের মোজা তৈরি করা হয়েছিল। অ্যাপল ইনসাইডারের তথ্য বলছে, ছয়টি মোজার একটি প্যাকেটের দাম ছিল ২৯ ডলার। মূলত, প্রতিদিনের ব্যবহারের সময় বাইরের আঘাত থেকে আইপডকে রক্ষার জন্য রংবেরঙের এসব মোজা বাজারজাত করেছিল অ্যাপল। ২০১২ সালে এই মোজা বাজারে ছাড়া বন্ধ করে প্রতিষ্ঠানটি।

৪. আইপড হাই-ফাই
আইপড বাজারে নিয়ে আসার পর এর সঙ্গে সংগতিপূর্ণ আরও কিছু পণ্য তৈরি করেছিল অ্যাপল। মোজার পর শুধু আইপডের জন্য বিশেষায়িত স্পিকার বাজারে আনে প্রতিষ্ঠানটি। এনগ্যাজেটের খবরে বলা হয়েছে, ২০০৬ সালে বাজারে আসে আইপড হাই-ফাই নামের স্পিকার। এর দাম হাঁকা হয়েছিল ৩৪৯ ডলার।

নিন্দুকদের মতে, এই স্পিকারের ব্যাটারির কর্মক্ষমতা ভালো ছিল না। এ ছাড়া এই স্পিকারে ছিল না এফএম রেডিও শোনার ব্যবস্থা। হালনাগাদ আইপডের সঙ্গে এই স্পিকারের খাপ খেতেও বেশ সমস্যা হতো বলে অভিযোগ আছে। শেষে বাজারে আনার এক বছর পরই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়ে আইপড হাই-ফাই তৈরি বন্ধ ঘোষণা করে অ্যাপল।

৫. অ্যাপল টাইম ব্যান্ড
১৯৯১ সালে জাপানি ম্যাগাজিন অ্যাক্সিসে সর্বপ্রথম এই পণ্যের বিষয়ে খবর বেরিয়েছিল। সংবাদমাধ্যম ওয়্যারডের খবরে বলা হয়েছে, অ্যাপল টাইম ব্যান্ড ছিল একধরনের ডিজিটাল অ্যাসিস্ট্যান্ট। তখন বলা হয়েছিল, এটি হাতঘড়ির মতো ব্যবহার করা যাবে। প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের মতে, এটি ছিল অ্যাপল ওয়াচের পূর্বসূরি। পরে এই ধারণাকে ভিত্তি করেই তৈরি হয়েছে হালের অ্যাপল ওয়াচ।

৬. ইওয়ার্ল্ড
গত শতাব্দীর নব্বইয়ের দশকের শুরুর দিকে আমেরিকা অনলাইন (এওএল) ইন্টারনেটের সঙ্গে যুক্ত থাকার ব্রাউজার সুবিধা নিয়ে এসেছিল। ওই সময় এটি তুমুল জনপ্রিয় হয়েছিল। তা দেখে ম্যাক ব্যবহারকারীদের জন্য অ্যাপল নিয়ে আসে ইওয়ার্ল্ড। এটি ম্যাক ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেটে যুক্ত করার সুবিধা দিয়েছিল।

ম্যাকওয়ার্ল্ড বলছে, ১৯৯৪ সালে চালু হয় ইওয়ার্ল্ড। মাসে ৮ দশমিক ৯৫ ডলারের বিনিময়ে মাত্র দুই ঘণ্টার জন্য এটি ব্যবহার করা যেত। বাড়তি ব্যবহারের জন্য দিতে হতো বাড়তি অর্থ। এতে ছিল না কোনো ব্রাউজারও। এসব ঝামেলার কারণে দুই বছরের বেশি টিকতে পারেনি ইওয়ার্ল্ড।

৭. ম্যাকিনটোশ ব্যাশফুল
আশির দশকের শুরুতেই একটি প্রোটোটাইপ ট্যাবলেট বানিয়েছিল অ্যাপল। ওয়্যারডের খবরে প্রকাশ, এই ট্যাবলেটের নাম ছিল ‘দ্য ব্যাশফুল’। এতে সংযুক্ত ছিল একটি কি-বোর্ড, একটি ফ্লপি ডিস্ক ড্রাইভ ও একটি স্টাইলাস। সহজে বহনের জন্য এই ট্যাবলেটে ছিল একটি হাতলও। এই ট্যাবলেট নির্মাণের ২০ বছরেরও বেশি সময় পর অ্যাপল বাজারে নিয়ে আসে আইপ্যাড। অন্যদিকে হারিয়ে যায় ব্যাশফুল।

৮. দ্য অ্যাপল কালেকশন
অ্যাপলকে সবাই চেনে প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান হিসেবেই। কিন্তু একসময় ব্যবসার প্রয়োজনে জামাকাপড়ও তৈরি করেছে স্টিভ জবসের এই কোম্পানি। মেন্টাল ফ্লসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ১৯৮৬ সালে ‘দ্য অ্যাপল কালেকশন’ নামে কিছু পণ্য তৈরি করেছিল অ্যাপল।

স্টিভ জবস অ্যাপল ছেড়ে চলে যাওয়ার এক বছর পরই জামাকাপড় ও অন্যান্য দ্রব্যের এই সিরিজ বাজারে আনা হয়। এতে ছিল শার্ট, বেল্ট, সাধারণ হাতঘড়ি, জুতা, জ্যাকেটসহ নানা পণ্য। তবে স্টিভ জবস ফেরার পর অবশ্য প্রযুক্তিপণ্য তৈরিতেই বেশি মনোযোগ দেয় অ্যাপল।

More News Of This Category