কমছে আইফোনের দাম

প্রতিষ্ঠানের আয় ১৫ শতাংশ কমে যাওয়ায় এবার আইফোনের দাম কমাতে চলেছে অ্যাপেল। একবছর আগের তুলনায় প্রতিষ্ঠানটির আয় কমেছে পাঁচ শতাংশ। তবে এই আয় কমার হিসাব আগেই ছিল অ্যাপেল সংস্থার কাছে। সেই অনুসারে বিনিয়োগকারীদের সতর্কও করে দেয় অ্যাপেল সংস্থা।

সংস্থার তরফে জানানো হয়, তাদের রাজস্ব আয় কমে ৮৪ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়াতে পারে, যা প্রত্যাশার তুলনায় অনেক কম হবে বিনিয়োগকারীদের কাছে। কিন্তু হঠাৎই অ্যাপেল সংস্থার এই পতনের কারণ নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে বিশ্ব বানিজ্য মহলে। অনেকে আবার এর জন্য দায়ী করেছে চীনের অর্থনৈতিক সমস্যাকে।

এই মুহুর্তে বিশ্ব বাজারে চীনা অর্থনীতি অনেকটাই শ্লথগতিতে চলছে। তবে অ্যাপেল সংস্থার প্রধান নির্বাহী টম কুক বলেছেন, “পণ্যের উচ্চ মূল্যের কারণে কিনতে গিয়ে ক্রেতারাও হিমশিম খাচ্ছেন।” ডলারের দর বাড়তির দিকে থাকায়, এই পণ্যটি আরো বেশি দামী হয়ে যাচ্ছে বিশ্ব বাজারে। ফলে উদীয়মান পণ্যটির বাজারে বিক্রিও কমে যায়।

মি. কুক বলেছেন, যেসব বাজারে মূল্যস্ফীতি রয়েছে, সেখানে মোবাইল ফোনগুলোর দামের বিকয়টি পুনরায় নির্ধারণ করার জন্য এ মাস থেকেই কোম্পানি কাজ শুরু করেছে। তবে প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তারা বলছেন, প্রতিষ্ঠানটির চ্যালেঞ্জ আরো কিছুদিন থাকবে বলেই তারা ধারণা করছেন।

অ্যাপল ধারণা করছে যে তিন মাসে, ৫৫ বিলিয়ন-৫৯ বিলিয়ন ব্যবসা হতে পারে, যার মানে গত বছরের তুলনায় ৩.৪ শতাংশ আয় কমে যাওয়া।

অ্যাপেল সংস্থার কর্ণধার মি. কুক বলেছেন”উদীয়মান অর্থনীতির দেশগুলোর অর্থনৈতিক মন্দার কারণে এই অবস্থা আরো কিছুদিন থাকবে” তবে অ্যাপলের প্রধান অর্থনৈতিক কর্মকর্তা লুকা ম্যায়েস্ত্রি মনে করছেন দাম কমলে অ্যাপেলের জনপ্রিয়তা বাড়বে বই কমবে না।

SHARE