1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

চাকরী করা অবস্থায় কীভাবে ব্যবসা শুরু করবেন

চাকরি করব, না ছেড়ে দিয়ে ব্যবসা করব এই রকম চিন্তা কম বেশী অনেক চাকরিজীবী করে থাকেন। চাকরি করা অবস্থায় একটি ব্যবসা শুরু করা কঠিন চ্যালেঞ্জ। আজকের এই লেখায় কিভাবে চাকরি করা অবস্থায় একটি ব্যবসা শুরু ও কি ব্যবসা করা যায় তা নিয়ে আলোচনা করার চেষ্টা করব।

চাকরি করা অবস্থায় ব্যবসা শুরু করার অনেক কারনই থাকতে পারে। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য- কারো অধীনে থাকতে না চাওয়া, নিজের মত করে জীবন অতিবাহিত করা, লিমিটলেস টাকা কামানো, ইত্যাদি। আশা করছি পাঠকগন এই লেখাটি পড়ে কিছু চিন্তার খোরাক পাবেন।

সময়ের হিসাব করুন: আপনি কত ঘণ্টা অফিসে কাজ করছেন এবং আপনার কত ঘণ্টা সময় দিন শেষে পরে থাকে তা জেনে নিন। তারপর আপনার ব্যাক্তিগত কাজের জন্য কত ঘণ্টা সময় লাগে তা জেনে নিন। উদাহরন- আপনি সকাল ৭ টায় ঘুম থেকে উঠেন এবং ৯ টা থেকে অফিসের কাজ শুরু করেন এবং যা বিকাল ৪.৩০ মিনিট পর্যন্ত চলতে থাকে। তারপর বাসায় আসতে ৬ টা বেজে গেল।

এবার আপনি ৬ টা থেকে ৯ টা পর্যন্ত এই ৩ ঘণ্টা ফ্রী থাকেন যা আপনি এই সময় কাজে লাগিয়ে ব্যবসা করতে চাচ্ছেন। অনেকের ক্ষেএে ৪ থেকে ৫ ঘণ্টা সময় ব্যবসায় দিতে পারে। তাছাড়া ছুটির দিনে আপনি চাইলে ব্যবসায় অতিরিক্ত সময় দিতে পারেন। তাহলে আমরা একটি বিষয়ে পরিষ্কার ধরনা পেয়েছি যে, চাকরি করা অবস্থায় আপনি চাইলে গড়ে ৪ ঘণ্টা সময় ব্যবসায় কাজে লাগাতে পারেন।

যে ব্যবসা চাকরি করা অবস্থায় শুরু করা যায়: ১। যৌথ মালিকানা ব্যবসা শুরু করতে পারেন, বিশেষ ভাবে যেসব ব্যবসা দোকান ভিত্তিক হয়ে থাকে। এই ব্যবসার জন্য ৩ জন মালিক থাকলে সব থেকে উত্তম। পালা ক্রমে দোকানদারি করা যেতে পারে। উদাহরন- কাপড়ের শোরুম, জুতার দোকান, খেলনার দোকান, ক্রোকারিজ পণ্য, ইত্যাদি।

২। ই-কমার্স। অনেক পণ্যের দিকে না ছুটে, দুই তিনটি পণ্য নিয়ে পার্ট-টাইম ব্যবসা হিসাবে ই-কমার্স শুরু করতে পারেন। সারা দিনে যেই সব পণ্যের অর্ডার পাবেন তা অফিস থেকে এসে কুরিয়ার সার্ভিসর মাধ্যমে এই ব্যবসা চালিয়ে যেতে পারেন। ছুটির দিনে মার্কেটিং এর দিকে নজর দিন। ধৈর্য ও সততার সাথে এই ব্যবসা করলে লাভবান হবেন বলে বিশ্বাস করছি।

৩। পার্ট টাইম অনলাইন ব্লগার। সারাদিন অফিসের কাজ করে যদি আবার বাইরে যেতে মন চায় তাহলে অনলাইন ব্লগিং করতে পারেন। মেধা ও ধৈর্য দিয়ে কাজ করলে অফিসের বেতনের চেয়ে বেশী আয় করতে পারবেন।

৪। লন্ড্রি ব্যবসা। সম্প্রতি লন্ড্রি ব্যবসা একটি সফল ব্যবসা হিসাবে বেশ পরিচিত। এক বা দুই জন কর্মচারী দিয়ে এই ব্যবসা করতে পারেন। বিকাল থেকে রাত পর্যন্ত আপনি নিজে থেকে তদারকি করতে পারবেন। এই ব্যবসা লস হবার সম্ভবনা খুবই কম। অল্প টাকা দিয়ে লন্ড্রি ব্যবসা শুরু করা যায়। তবে লন্ড্রি দোকান নেওয়ার আগে মার্কেট যাচাই করে নিতে হবে।

৫। আইপিও শেয়ারে আবেদন করুন। অনেক চাকরিজীবীই এই ব্যবসার সাথে আজ সম্পৃক্ত। ১০০ ভাগ ঝুঁকি মুক্ত ব্যবসা করতে চাইলে এই ব্যবসার বিকল্প নেই। বিশেষ নোটঃ আবেগে পড়ে কখনই চাকরি ছেড়ে ব্যবসা করবেন না। চাকরি আপনি তখনই ছাড়বেন যখন আপনার চাকরির বেতনের থেকে ব্যবসা থেকে বেশী আয় হচ্ছে।

More News Of This Category