1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :

সামিট পাওয়ারে ১১৯০ কোটি টাকার সিঙ্গাপুর ও জাপানী বিনিয়োগ

সামিট গ্রুপের অঙ্গপ্রতিষ্ঠান সামিট গাজীপুর-২ পাওয়ার লিমিটেড সিঙ্গাপুরের ক্লিফোর্ড ক্যাপিটাল ও জাপানের দ্বিতীয় বৃহত্তম ব্যাংক সুমিতোমো মিতসুই ব্যাংকিং করপোরেশন (এসএমবিসি) থেকে ১৪ কোটি মার্কিন ডলারের দীর্ঘমেয়াদী প্রকল্প অর্থায়ন পেয়েছে। এই অর্থ বাংলাদেশের প্রায় ১ হাজার ১৯০ কোটি টাকার সমান। সামিট, ক্লিফোর্ড ও এসএমবিসি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য জানিয়েছে।

এতে বলা হয়, এটি বাংলাদেশে বৈদেশিক বিনিয়োগের ক্ষেত্রে একটি মাইলফলক। দেশের বেসরকারি খাতে সামিট প্রথম বিদ্যুৎ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে এই বিনিয়োগ পেয়েছে। আগে বিদ্যুৎ খাতে বিদেশি বিনিয়োগের পুরোটা বা অধিকাংশই ডিইজি, এফএমও, আইএফসি, এডিবি, আইএসডিবি, সিডিসি এসব আন্তর্জাতিক উন্নয়ন অর্থনৈতিক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে আসত।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বাংলাদেশ ও সিঙ্গাপুর উভয় দেশে লকডাউনের পরিস্থিতিতে গত ২২ এপ্রিল এই অর্থায়ন প্রক্রিয়া সম্পন্ন হয়েছে। এই অর্থায়ন প্রক্রিয়া দ্রুুত ত্বরান্বিত করতে বাংলাদেশ ব্যাংক চলমান লকডাউনের মধ্যে প্রয়োজনীয় অনুমোদন প্রদান করে।

সামিট গ্রুপের চেয়ারম্যান মুহাম্মদ আজিজ খান বলেন, ‘কোভিড-১৯ মহামারির মধ্যেও বাণিজ্যিক ঋণদাতাদের কাছে থেকে দীর্ঘমেয়াদী প্রকল্প অর্থায়ন পাওয়ায় আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর কাছে সামিট ও বাংলাদেশের মর্যাদা এবং সুনামের প্রতিফলন ঘটেছে। আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে আমরা উন্নয়নের লক্ষ্যে নিরলসভাবে কাজ করে যাবো।’

ক্লিফোর্ড ক্যাপিটালের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) অদ্রা লো বলেন, ‘সিঙ্গাপুরভিত্তিক অবকাঠামো উন্নয়নকারি প্রতিষ্ঠান সামিট পাওয়ার ইন্টারন্যাশনালের বাংলাদেশে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ব্যবসা সম্প্রসারণের সহযোগী হতে পেরে ক্লিফোর্ড ক্যাপিটাল আনন্দিত। আমাদের মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে, অর্থায়নের মাধ্যমে সিঙ্গাপুরভিত্তিক কোম্পানিগুলোকে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে বিনিয়োগে সহায়তা করা।’

এসএমবিসির এশিয়া ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের স্ট্রাকচারড ফাইন্যান্স বিভাগের হেড অব পাওয়ার, রিনিউয়েবলস অ্যান্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার জীন সো বলেন, ‘এই অভূতপূর্ব পরিস্থিতিতেও এমন গুরুত্বপূর্ণ লেনদেন সম্পন্ন করতে পারায় আমি পুরো দলকে অভিনন্দন জানাতে চাই। আমরা এসএমবিসি ও সামিট করপোরেশনের মধ্যে দীর্ঘ ও ফলপ্রসূ পারস্পরিক সহযোগিতার সম্পর্ক প্রত্যাশা করছি।’

প্রাথমিকভাবে বাংলাদেশের ব্যাংক এশিয়া, সিটি ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক ও মিউচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ইতিপূর্বে সামিট গাজীপুর-২ পাওয়ার প্রকল্প নির্মাণে অর্থায়ন করেছিলো। সামিট করপোরেশন ও সামিট পাওয়ার লিমিটেডের যৌথ মালিকানাধীন একটি প্রতিষ্ঠান সামিট গাজীপুর-২ পাওয়ার লিমিটেড।

প্রকল্পটি বাংলাদেশের বেসরকারি খাতে বৃহত্তম জ্বালানি তেল সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠান সামিট অয়েল অ্যান্ড শিপিং কোম্পানি লিমিটেডের (এসওএসসিএল) সঙ্গে দীর্ঘমেয়াদী জ্বালানি সরবরাহ চুক্তি করে এবং বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডকে (বিপিডিবি) ১৫ বছরের চুক্তির আওতায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করছে। এই প্রকল্পটি ২০১৮ সালের ১০ মে বাণিজ্যিকভাবে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু করে। তখন থেকেই এটি জাতীয় গ্রীডে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে আসছে।

More News Of This Category