1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

ডেটা ফুরালে টাকা কাটা বন্ধ!

ধরুন, মাসে এক গিগাবাইট ইন্টারনেট কিনেছেন। কিন্তু মেয়াদের আগেই ইন্টারনেট শেষ হয়ে গেছে। এসময় অতিরিক্ত ব্যবহারের জন্য ‘পে পার ইউজ’ হারে বিল দিতে হয়। অর্থাৎ যতটুকু ব্যবহার ততটুক বিল। অনেক সময় এটা অজান্তেই ঘটে থাকে। তখন গ্রাহকরা দাবি করে থাকেন, তার মোবাইল থেকে অতিরিক্ত টাকা কেটে নেয়া হয়েছে। এই হার সাধারণত ০.০১ টাকা/১০ কেবি (+ট্যাক্স) বা ০.০২ টাকা/১০ কেবি চার্জ করা হয়ে থাকে; তবে অপারেটরদের ভিন্ন ভিন্ন হার রয়েছে।

নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিটিআরসি বলছে, এখন থেকে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারে ‘পে পার ইউজ’ -এ ৫ টাকা পর্যন্ত কেটে নিতে পারবে অপারেটররা। এটা পার হওয়ার পর গ্রাহকের অনুমতি নিতে হবে। ১ মার্চ থেকে এই নিয়ন্ত্রণ সীমা কার্যকর করতে অপারেটরগুলোর কাছে নির্দেশনা পাঠানো হয়েছে। বিটিআরসি জানায়, ইন্টারনেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের ‘বিল শক’ থেকে রক্ষা করার জন্য ‘পে পার ইউজ’ ৫ টাকার বেশি হবে না। তবে কোনো গ্রাহক ৫ টাকার বেশি লিমিট নিতে চাইলে তার কাছ থেকে এমএসএস বা ইউএসএসডির মাধ্যমে কনসেন্ট বা সম্মতি নিতে হবে, যাতে করে গ্রাহকের কাছ থেকে পরবর্তীতে কোনো অভিযোগ উত্থাপিত হলে অপারেটর বা গ্রাহকের দৃশ্যমান প্রমাণ উপস্থাপন করা সম্ভব হয়।

২০১৬ সালে সেলফোন সেবা নিয়ে গ্রাহকদের অভিযোগ ও মতামত জানতে প্রথমবারের মতো গণশুনানি আয়োজন করে বিটিআরসি। এতে অপারেটরদের একই সেবার প্রয়োজনাতিরিক্ত প্যাকেজের বিষয়ে অভিযোগ করেন গ্রাহকরা। গত বছরের শেষদিকে সেলফোন অপারেটরদের নতুন প্যাকেজের অনুমোদন স্থগিত রাখে কমিশন। বিটিআরসির একটি সূত্র জানায়, সেলফোন অপারেটরদের অতিরিক্ত প্যাকেজ থাকায় গ্রাহকদের বিভ্রান্তির বিষয়টি গণশুনানিতে তুলে ধরা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে প্যাকেজের সংখ্যাও কমিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। সেলফোন অপারেটরদের প্যাকেজ ও অফার থাকবে সর্বোচ্চ ৩৫টি।

তথ্যসূত্র: আরটিভি অনলাইন ডটকম।

More News Of This Category