1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

দাম কমবে ফরমালিনের!

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট উত্থাপনকালে সমগ্র ওষুধের কাঁচামালের করে অব্যাহতি দেওয়ার প্রস্তাব করেছেন। সে হিসেবে ফরমালিনের কাঁচামাল ফরম্যালডিহাইডের (Formaldehyde, 37% w/w) ওপরও চলমান কর ২৫ শতাংশ থেকে শূন্য শতাংশে আনার প্রস্তাব করা হয়েছে। এছাড়া পেট্রোলিয়াম ইথার, ডাইবিউটাইল থ্যালেটের ক্ষেত্রেও একই পরিমাণ কর অব্যাহতির প্রস্তাব আনা হয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ব্রিটিশ নিয়মানুসারে পানিতে ৪০ ভাগ ফরম্যালডিহাইড এবং আমেরিকান নিয়মানুসারে পানিতে ৩৭ শতাংশ থেকে ৫০ শতাংশ ফরম্যালডিহাইডের অস্তিত্বকে ফরমালিন বলে। সমগ্র ওষুধের কাঁচামালে কর অব্যাহতির প্রস্তাবের মাধ্যমে এই ফরমালিনের দাম কমানোরই সুপারিশই করা হলো।

সারাদেশে দীর্ঘদিন ধরে ফরমালিনের ব্যবহারে আতঙ্কিত রয়েছেন প্রায় সবাই। মাছ তরতাজা রাখতে বাজারে ফরমালিন ব্যবহারের আতঙ্ক দূর করার লক্ষ্যে আলাদা পামির হাউসে মাছ সংরক্ষণ করে জীবিত মাছ বিক্রি করতেও দেখা গেছে। এছাড়া ফলমূল ও শাক-সবজিতে ফরমালিনের ব্যবহার আরও বেড়ে যাওয়া নিয়েও আতঙ্কিত রয়েছে দেশবাসী।

তবে ফরমালিনের দাম কমানোর ক্ষেত্রে ভালো-খারাপ উভয় দিক রয়েছে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, ফরমালিন যাদুঘরে প্রাণি সংরক্ষণের ক্ষেত্রে ব্যাপক হারে ব্যবহৃত হয়। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বৈজ্ঞানিক ল্যাবরেটরি বা গবেষণাগারেও ব্যবহৃত হয়। তাই এর বহুল ব্যবহারে ফরমালিনের দাম কমানোর প্রস্তাবটি একটি প্রয়োজনীয় সিদ্ধান্ত।

এদিকে চিকিৎসকদের মতে, মাছ বা খাদ্যে ফরমালিনের ব্যবহারের কারণে মানুষের ছোট ছোট রোগ- যেমন গ্যাস্ট্রিক, বমি ভাব, খসখসে ত্বক, সাময়িক ক্ষুধামান্দ্যসহ বিভিন্ন রোগ বেড়ে যায়। যা ধীরে ধীরে বড় ধরনের মারাত্মক রোগে রূপ নিতে পারে। সে বিবেচনায়ই ফরমালিনের যথেচ্ছ ব্যবহারের শঙ্কায় রাসায়নিক পদার্থটির দাম আরও কমে যাওয়া নিয়ে উদ্বিগ্ন প্রায় সর্বস্তরের মানুষ।

তথ্যসূত্র: বাংলানিউজ ডটকম।

More News Of This Category