1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :
সফলতার গল্প :

দেশে কোটিপতির সংখ্যা বেড়ে প্রায় ৮৪ হাজার!

দেশে কোটিপতির সংখ্যা বেড়েছে ব্যাপক হারে। বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সাল পর্যন্ত ব্যাংকিং খাতে মোট আমানতকারীর সংখ্যা ১০ কোটি ৬৫ লাখ ৯৫ হাজার ২১১টিতে দাঁড়িয়েছে। এর মধ্যে কোটিপতি অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ৮৩ হাজার ৮৩৯টি। আর গত এক বছরেই কোটিপতি অ্যাকাউন্ট বেড়েছে ৮ হাজার ২৭৬টি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের হালনাগাদ প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে একটি জাতীয় দৈনিকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমানে ব্যাংকিং খাতে মোট আমানতের প্রায় সাড়ে ৪৩ শতাংশই কোটিপতিদের দখলে। প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত ব্যাংকিং খাতে মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১২ লাখ ১৪ হাজার ৪৫৫ কোটি টাকা। এর মধ্যে কোটিপতিদের দখলে থাকা আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ৫৬ হাজার ৯৯৬ কোটি টাকা, যা ব্যাংকিং খাতে মোট আমানতের প্রায় ৪৩.৩৯ শতাংশ।

২০১৯ সালের সেপ্টেম্বর শেষে দেশে কোটিপতি অ্যাকাউন্ট ছিল ৭৯ হাজার ৮৭৭টি। ফলে তিন মাসের ব্যবধানে কোটিপতি অ্যাকাউন্টের সংখ্যা বেড়েছে তিন হাজার ৯৬২টি। ২০১৮ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত দেশে কোটিপতি অ্যাকাউন্টের সংখ্যা ছিল ৭৫ হাজার ৫৬৩টি। সেই হিসাবে এক বছরে কোটিপতি অ্যাকাউন্ট বেড়েছে ৮ হাজার ২৭৬টি।

প্রতিবেদনে দেখা যায়, ২০১৯ সালের ডিসেম্বর শেষে এক কোটি এক টাকা থেকে পাঁচ কোটি টাকার আমানতকারীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৬৫ হাজার ৯১৯টি। ২০১৮ সালে যা ছিল ৫৯ হাজার। এ সময়ে ৪০ কোটি এক টাকা থেকে ৫০ কোটি টাকার অ্যাকাউন্ট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৮৪টি, যা ২০১৮ সাল পর্যন্ত ছিল ৩৫৮টি। এদিকে ৫০ কোটি টাকার বেশি আমানতকারীর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১ হাজার ২৮৩টি। ২০১৮ সালে যা ছিল এক হাজার ১৪৮টি।

এ ছাড়া গত বছরের ডিসেম্বর শেষে পাঁচ কোটি এক টাকা থেকে ১০ কোটির মধ্যে ৯ হাজার ৪২৬ জন, ১০ কোটি এক টাকা থেকে ১৫ কোটির মধ্যে তিন হাজার ১৮৪ জন, ১৫ কোটি এক টাকা থেকে ২০ কোটির মধ্যে এক হাজার ৪৭২ জন, ২০ কোটি এক টাকা থেকে ২৫ কোটির মধ্যে ৯৯৭ জন, ২৫ কোটি এক টাকা থেকে ৩০ কোটির মধ্যে ৫৮৮ জন, ৩০ কোটি এক টাকা থেকে ৩৫ কোটি টাকার মধ্যে ২৪৬ জন এবং ৩৫ কোটি এক টাকা থেকে ৪০ কোটির মধ্যে ৩৮৪ জন আমানতকারী অ্যাকাউন্ট রয়েছে।

আমানতকারীর ব্যাংক হিসাব থেকে ধারণা করা হলেও দেশে কোটিপতির প্রকৃত সংখ্যা কত তা জানা কঠিন। কারণ, বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে শুধু যেসব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের ব্যাংক হিসাবে কোটি টাকার বেশি জমা আছে, সেই সংখ্যা দেওয়া হয়েছে। এর বাইরে অনেকেই আছেন যাদের এক কোটির বেশি টাকার সম্পদ আছে। তথ্যসূত্র: সময় টিভি।

More News Of This Category