নিজেদের র্নিদোষ দাবী আড়ংয়ের

বেশ বিতর্কের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে দেশের জনপ্রিয় ব্র্যান্ড আড়ং। সেদিন সন্ধ্যায় পণ্যের দাম বেশি রাখায় আড়ংয়ের উত্তরার শোরুমকে ৪ লাখ টাকা জরিমানা ও বন্ধ করে দেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতরের ঢাকা বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক মনজুর মোহাম্মদ শাহরিয়ার।

এ ঘটনার পরপরই আড়ংয়ে অভিযান চালানো সেই ম্যাজিস্ট্রেটকে খুলনায় বদলি করার খবর ছড়িয়ে পড়লে সোশ্যাল মিডিয়ায় তুমুল ঝড় ওঠে।প্রতিষ্ঠানটিকে নিয়ে নানা অভিযোগ জানিয়ে সরব হয়ে ওঠেন ক্রেতাসহ সাধারণ মানুষ। আড়ংয়ের পোশাক পুড়িয়ে, মানববন্ধন করে এর প্রতিবাদ করেছেন কেউ কেউ। অনেকে আড়ংয়ের নানা অনিয়ম নিয়ে ফেসবুকে সরব হয়ে আড়ংয়ের পণ্য বর্জন করার ঘোষণা দেন।

এমন সব ঘটনার প্রভাব পড়েছে ব্র্যান্ডটির বিভিন্ন শো-রুমে। মানুষের এই আড়ং পণ্য বর্জনের ঘোষণার মুখে ঈদের আগের দিন অনেকটা সময় একরকম ক্রেতাশূন্য ছিল আড়ংয়ের কয়েকটি আউটলেট। এরপর ব্র্যান্ডটির ফেসবুক পেজের লাইকসংখ্যাও দ্রুত কমতে থাকে। সেখানে জমা পড়তে থাকে নেতিবাচক সব মন্তব্য।

এমন পরিস্থিতিতে আড়ং তাদের বিপক্ষে আনা সব অভিযোগের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে নিজেদের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাস পোস্ট করে। সেখানে আড়ং তার ব্যবসায়িক সততা তুলে ধরার চেষ্টা করে। পাঠকদের জন্য আড়ংয়ের ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু তুলে ধরা হলো-

‘গত ৪০ বছর ধরে বাংলাদেশের লাখো মানুষ আড়ং এর ওপর আস্থা রেখে চলেছেন। তাদের দৈনন্দিন জীবন এবং উৎসবের রঙিন মুহূর্তগুলোয় আড়ংকে সঙ্গী করেছেন, সেজন্য আমাদের অশেষ কৃতজ্ঞতা। আমরা নিশ্চিত করতে চাই যে, ঈদ বা অন্য কোনো উৎসবের আগে কখনওই আড়ং পণ্যে দাম বাড়ায় না।

মূল্যতালিকায় কোনো অসঙ্গতি চোখে পড়লে যে কোনো সময় সম্মানিত ক্রেতারা অভিযোগ জানাতে পারেন সংশ্লিষ্ট আউটলেটে। প্রতিষ্ঠানের নীতিমালা অনুযায়ী অতিরিক্ত মূল্যের সমপরিমাণ অর্থ ক্রেতাকে ফেরত দেয়ার ব্যবস্থা আড়ংয়ের সব আউটলেটে অনেকদিন আগে থেকেই রয়েছে।

এ বিষয়ে কোনো প্রশ্ন থাকলে কল করুন আড়ংয়ের কাস্টমার কেয়ার নম্বরে: ০৯৬৭৮৪৪৪৭৭৭ (প্রতিদিন সকাল ১০ থেকে রাত ৮টা, শুধুমাত্র ঈদ এবং ঈদের পরের দিন বন্ধ)।

এছাড়াও, নিকটস্থ আড়ং আউটলেটে যোগাযোগ করে অথবা আমাদের ফেইসবুক পেইজের ইনবক্সে আপনার প্রশ্ন জানাতে পারেন। আন্তরিক ধন্যবাদ আড়ং এবং এর শিল্পী-কারিগরদের সঙ্গে থাকার জন্য যারা আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছেন আমাদের ঐতিহ্যকে বাঁচিয়ে রাখতে।’

স্ট্যাটাসটি দেয়ার পরপরই অজস্র মন্তব্য জমা পড়তে থাকে। এখন পর্যন্ত জমা পড়া ১৪ হাজার মন্তব্যের মধ্যে বেশিরভাগই নেতিবাচক। আড়ংয়ের অবস্থানের বিপক্ষে সেখানে মতামত দিয়েছে অধিকাংশ নেটিজেন।

SHARE