1. uddoktarkhoje@gmail.com : uddoktarkhoje :

পরিবহন সংশ্লিষ্ট ব্যবসার আইডিয়া

সামগ্রিক বিনিয়োগ বিবেচনায় বর্তমান সময়ে জনপ্রিয় ব্যবসাটি হলো পরিবহন ব্যবসা। সম্প্রতি এ খাতে তরুন উদ্যেক্তাদের আপ্রহ বাড়ছে। বেশির ভাগ উদ্যেক্তাই স্মাট একটি ক্যারিয়ার গঠনের লক্ষ্যে পরিবহন ব্যবসাকে বেছে নিচ্ছে। সঠিক পরিকল্পনা, তদারকি ও ব্যবস্থাপনাই এই ব্যবসায় সফলতার মূলমন্ত্র হিসেবে কাজ করে।

কার স্টোর বা গাড়ীর দোকান ব্যবসা: গাড়ীর দোকান একটি বৃহৎ আকারের ব্যবসা প্রকল্প। কোনো খালি মাঠ অথবা ফাঁকা পুরাতন গুদামে এ ব্যবসাটি আরম্ভ করা যেতে পারে। এই ব্যবসায় অর্থনৈতিক ভাবে লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

কুরিয়ার সার্ভিস ব্যবসা – পরিবহন ব্যবসা: প্যাকেট ও বিভিন্ন ডকুমেন্ট গ্রাহকের চাহিদা মত জায়গায় সঠিক সময়ে পৌঁছে দেওয়াই কুরিয়ার সার্ভিসের কাজ। আপনি যে কোন ছোট শহরে আপনার নিজস্ব অবকাঠামোতে কম পুঁজিতে একটি কুরিয়ার সার্ভিস শরিি করতে পারেন। এক্ষেএে পরিবহন এবং র্পাসেল সাভির্সের জন্য লোকবলের প্রয়োজন হয়। অধিকতর লাভজনক ও সম্ভাবনাময় খাত হিসেবে তরুন উদ্যেক্তাদের নিকট এটি একটি জনপ্রিয় ব্যবসাক্ষেএ।

ট্র্যাকিং: আমদানী ও রপ্তানী করা পণ্যেও একটি বড় অংশ বিভিন্ন শহর ও গ্রামে পৌছে দিতে ট্রাকের প্রয়োজন হয়। ট্র্যান্সপোর্টেশন সেক্টর এ ট্র্যাকিং সার্ভিস টি অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং ও লাভজনক ব্যবসাক্ষেএ হিসেবে বিবেচনা করা যায়। ভোক্তাদের মালামাল, আমদানী রপ্তানী করা মালামাল, চাষকৃত পন্য ইত্যাদি এক স্থান থেকে অন্য স্থানে পৌছে দেওয়াই এ সেক্টরের কাজ। এটি বাণিজ্যিক ক্যারিয়ার গঠনের জন্য উপযুক্ত ব্যবসাক্ষেএ।

শিপিং সার্ভিস: ট্রান্সর্পোট সেক্টর এ শিপিং সার্ভিসটি একটি নির্ভরযোগ্য ও লাভজনক ব্যবসা খাত হিসেবে বিবেচিত হতে পারে । ক্্রমবর্ধমান চাহিদার প্রেক্ষিতে দিন দিন ব্যাপক হারে বাড়ছে এ শিল্পের চাহিদা । এ ব্যবসায় সাফল্য অর্জন করতে হলে এক্সপোর্ট ,ইর্ম্পোট, কন্টেইনার এবং লজিস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ গুলোর সাথে যোগাযোগ রক্ষা করতে হবে।

এয়ার কার্গো ব্যবসা: দ্রুত ও নিরাপদে পন্য পরিবহনের জন্য এয়ার কার্গো একটি নিরাপদ ও বিশ^স্ত বাহন। আপনি বিভিন্ন এয়ারক্রাফট কোম্পানির মধাস্থতাকারী হিসেবে শুরু করতে পারেন। এ বিষয়ে আপনার সঠিক জ্ঞান ও দক্ষতাই কাঙ্খিত লক্ষ্যে পৌঁছে দিবে। এই ব্যবসা শুরু করতে হলে লাইসেন্স খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটি একটি রেসিডেন্ট ভিত্তিক ব্যবসার ধারণা।

ট্যাক্সি ক্যাব – পরিবহন ব্যবসা: শহরাঞ্চলে ট্যাক্সি ক্যাব একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় ট্রান্সপোর্টশন সেক্টর। অল্প পুজিঁ বিনিয়োগ করে অধিকতর লাভের জন্য অনেকে এ পেশায় ঝুঁকে পড়ছে। আপনি ২/৩ টা ট্যাক্সি ও ড্রাইভার সহ ছোট একটি এরিয়ায় একটি ট্যাক্সিক্যাব সার্ভিস শুরু করতে পারেন এবং ধীরে ধীরে মুনাফা বৃদ্ধি করে ব্যবসা প্রসারিত করতে পারেন। এটি একটি চ্যালেঞ্জিং ব্যবসার ধারণা।

ফেরি ট্রান্সর্পোট: ফেরি এমন একটি মার্চেন্ট জাহাজ যার সম্পূর্ণ বডি পানির উপর ভাসমান থাকে। এটি একই সাথে যাত্রী ও বিভিন্ন ধরনের যানবাহন বহনে সক্ষম। উন্নয়নশীল দেশ গুলোতে ফেরি একটি দ্রুত বর্ধনশীল শিল্প হিসেবে বিবেচিত হয়। ফেরি সড়ক পরিবহনের বিকল্প হিসেবে কাজ করে থাকে। ট্রাফিক জ্যাম থেকে বাচঁতে এবং বিনোদনের মাধ্যম হিসেবে যাত্রীদের কাছে এটি খুব আস্থাশীল একটি ট্রান্সর্পোটশন সিস্টেম।

মেডিকেল ট্রান্সর্পোটেশন: অধিকাংশ মানুষ বিশেষ করে বৃদ্ধ, শিশু, প্রতিবন্ধী বা নি¤œ আয়ের মানুষ, যখন ডাক্তারের কাছে চিকিৎসার জন্য যেতে চান তখন তাদের পরিবহনের সমস্যায় পড়তে হয়। সেবা দানের পাশাপাশি অর্থ উপার্জনের জন্য মেডিকেল ট্রান্সপোর্টেশন ব্যবসাটি সকল উদ্যোক্তাদের কাছে একটি গ্রহণযোগ্য পাবলিক সেক্টর।

কার ওয়াস: কার ওয়াশ একটি ঝুকি মুক্ত ব্যবসার ধারণা। অধিকাংশ মানুষ সময়ের অভাবে তাদের গাড়ী পরিষ্কার করতে পারে না। একটি খোলা জায়গায় প্রয়োজনীয় কিছু সরজ্ঞাম নিয়ে সহজেই কার ওয়াশ ব্যবসা শুরু করা যায়।

পুরাতন গাড়ী বিক্রি ব্যবসা: অনেক মানুষের নিজের গাড়ির মালিক হওয়ার ইচ্ছা থাকে কিন্তু নতুন গাড়ি কিনার সামর্থ্য থাকে না। এই কারণে পুরাতন গাড়ি বিক্রয় শিল্পটি একটি টেকসই ব্যবসায় উদ্যোগ হতে যাচ্ছে। আপনার যথেষ্ট পুঁজি না থাকলে এজেন্ট হিসেবে ও শুরু করতে পারেন এ ব্যবসাটি। এই ব্যবসায় লাভবান হওয়ার সম্ভাবনা অধিক। এছাড়া ব্যাটারি চালিত রিস্কা, মোটর সাইকেল ছোট পিকাপ ভাড়া দিতে পারেন।

More News Of This Category