1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

পাঁচ অভ্যাস যা আপনার গাড়ির জন্য ক্ষতিকর!

যত্ন নিলে যেকোনো যন্ত্রের মতো গাড়িও দীর্ঘস্থায়ী হয়। অন্যদিকে একে যথাযথভাবে যত্ন না নিলে সঠিক সময়ে যান্ত্রিক সমস্যাগুলো দূর না করলে তা গাড়ির আয়ু কমিয়ে দেয়। এ লেখায় থাকছে পাঁচটি অভ্যাস, যা গাড়ি নষ্ট করার জন্য দায়ী।

১. সাধারণ রক্ষণাবেক্ষণে দেরি: গাড়ির নিয়মিত কিছু রক্ষণাবেক্ষণ প্রয়োজন হয়। দীর্ঘস্থায়িত্বের জন্য এগুলো সময়মতো করে নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এসবের মধ্যে রয়েছে মোবিল পরিবর্তন, বিভিন্ন ফিল্টার পরিবর্তন (এয়ার ও তেল ফিল্টার), ট্রান্সমিশন ফ্লুইডসহ নানা ফ্লু্ইড পরিবর্তন। এসব কাজের জন্য প্রত্যেক গাড়ি নির্মাতাই তাদের গাড়ির জন্য নির্দিষ্ট একটি মাপকাঠি সেট করে দেয়। গাড়ির ম্যানুয়াল পড়লেই এ মাপকাঠিগুলো জানা সম্ভব। সে অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

২. ড্যাশবোর্ডের লাইটে পাত্তা না দেওয়া: গাড়ি গরম হয়ে গেলে যেমন লাইট জ্বলে ওঠে তেমন আরও নানা সংকেত ড্যাশবোর্ডে দেখা যায়। এসব সংকেত দেখে গাড়ির রক্ষণাবেক্ষণ করা অতি গুরুত্বপূর্ণ। এসব লাইট থেকে অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ নানা সমস্যা বোঝা সম্ভব হয়। আর লাইটগুলোতে গুরুত্ব না দিলে তা দুর্ঘটনারও কারণ হতে পারে।

৩. ঠিকঠাক গিয়ার পরিবর্তন না করা: গিয়ারবক্স গাড়ির একটি মূল্যবান যন্ত্র। আপনি যদি গাড়ি সামনে চলার সময় ব্যাক গিয়ারে পরিবর্তন করে চাকায় শক্তি দেন তাহলে তা গিয়ারবক্সের ওপর অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি করে। এ ধরনের অভ্যাসে গাড়ির গিয়ারবক্স নষ্টও হয়ে যেতে পারে। ম্যানুয়াল গাড়ির গিয়ার পরিবর্তনের সময় ঠিকঠাক ক্লাচ চেপে নেওয়া উচিত। এ ধরনের বিষয়গুলো ঠিকভাবে না করলে গাড়ি দ্রুত নষ্ট হতে পারে।

৪. বাজে ড্রাইভিং: গাড়ির গতি বাড়ানো, কমানো কিংবা ঝাঁকি দেওয়ার ক্ষেত্রে সব সময় সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়। গাড়ি যদি দ্রুত গতি বাড়ানো হয়, ট্রাফিক সিগন্যালে গিয়ে হঠাৎ শক্ত ব্রেক করে থামানো হয়, ভাঙা রাস্তা হলেও তাতে গতি কমানো না হয় তাহলে গাড়ি দ্রুত নষ্ট হয়। বাজে ড্রাইভিংয়ের কারণে গাড়ির সবগুলো যন্ত্রের ওপরেই বাড়তি চাপ পড়ে। এতে যন্ত্রপাতি তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়।

৫. সময়মতো টায়ার না পাল্টানো: গাড়ির টায়ারের মূল্য বেশি হলে অনেকেরই তা সময়মতো পাল্টানো হয় না। কিন্তু গাড়ির টায়ার যদি ঠিকঠাক পাল্টানো না হয় তাহলে তা বৃষ্টি ও কাদার মধ্যে দুর্ঘটনার কারণ হয়। এতে হঠাৎ পাংচার হয়ে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে।

তথ্যসূত্র: চাকাবিডি ডটকম।

More News Of This Category