1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

পার্সোনালিটি ডেভেলপ করতে অবশ্যই পড়া উচিৎ যে ৭ বই!

বিখ্যাত একজন আমেরিকান লেখক ও মোটিভেশনাল স্পিকার, হিলারী হিনটন বলেছিলেন, “গরিবদের ঘরে থাকে ছোট লাইব্রেরী ও বড় টিভি কিন্তু ধনীদের ঘরে থাকে ছোট টিভি ও বড় লাইব্রেরী” উনি কথাটা দ্বারা বোঝাতে চেয়েছেন যে, যারা বর্তমান যুগে সফলতার শীর্ষে অবস্থান করছেন, প্রত্যেকেই বই পড়েন এবং বই পড়াটাকে পেশা হিসেবে বেছে নেন।

কারণ, বই পড়লে মানুষের জ্ঞান বৃদ্ধির পাশাপাশি, শব্দভান্ডারও বৃদ্ধি পায় এবং পার্সোনালিটি ডেভেলপমেন্টের জন্য বই পড়লে শিক্ষার পাশাপাশি দুশ্চিন্তা থেকেও মুক্ত থাকা যায়। আমেরিকান সফল ব্যবসায়ী, বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ের সিইও ও মাল্টি বিলিয়নিয়ার, ওয়ারেন বাফেট তার দিনে ৮০ ভাগ ব্যয় করেন বই পড়ে। ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা, মার্ক জাকারবার্গ প্রত্যেক মাসে অন্তত দুটো বই পড়েন। স্পেস এক্স ও টেসলার প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও, এলন মাস্ক রকেট তৈরি করা শেখেন শুধুমাত্র বই পড়ে।

অপরাহ উইনফ্রে নেটওয়ার্ক, অভিনেত্রী ও টিভি টক শোয়ের হোস্ট, অপরাহ উইনফ্রে সফলতার চেহারা দেখেছেন শুধুমাত্র বই পড়ে। পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি ও মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা, বিল গেটস প্রত্যেক বছর কমপক্ষে ৫০টি বই পড়েন। সুতরাং, বোঝাই যাচ্ছে, বই পড়া আমাদের জন্য কতটা উপকারী ও শিক্ষণীয়। চলুন আজকে জেনে আসি, এমন কিছু বই সম্পর্কে, যেগুলো পড়ে আপনার পার্সোনালিটি ডেভেলপ করাটা অনেকটা সহজ হয়ে যাবে।

দ্যা সেভেন হ্যাবিটস অফ হাইলি এফেক্টিভ পিপল: এই বইটি লিখেছেন জনপ্রিয় আমেরিকান মোটিভেশনাল স্পিকার এবং লেখক ড. স্টিভেন আর কোবি। তিনি এই বইয়ে দেখিয়েছেন, ছোট থেকে বড় হওয়ার সময় আমাদের প্রত্যেকের মাঝেই অভ্যাসগত কী কী পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। যারা সফলতার পেছনে ছুটছেন, তাদের এই বইটি অবশ্যই পড়া উচিৎ।

মানুষের বয়সের পাশাপাশি বিভিন্ন ধাপে অভ্যাসগত যেসব পরিবর্তন হয় ও জাতিগত পার্থক্য মানুষের অভ্যাসে যেসব পরিবর্তন নিয়ে আসে, সে সম্পর্কে বর্ণনা দেয়া হয়েছে এই বইয়ে। এছাড়াও, ইতিহাস, লক্ষ্য, জ্ঞান ও আশার উপর ভিত্তি করে অভ্যাসের পরিবর্তন সম্পর্কেও বলা হয়েছে এখানে। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৫৫০০ টাকায়।

দ্যা পাওয়ার অফ অনলিনেস: এই বইটি লিখেছেন নিলোফার মার্চেন্ট। তিনি এই বইয়ে পাঠক পাঠিকাদের সক্ষমতা সম্পর্কে, অন্যদের কাছ থেকে সাহায্য না চেয়ে বেড়ে উঠার পদ্ধতি, কীভাবে চিন্তার ডানা মেলে দেয়া যায়, কীভাবে বেঁচে থাকার জন্য নতুন পদ্ধতি বের করা যায় ইত্যাদি নিয়ে লিখেছেন। কীভাবে মানসিক ও শারীরিক সমস্যাগুলোকে পেছনে ফেলে সামনে এগুনো যায় সে সম্পর্কেও কথা বলা হয়েছে এখানে।

নিলোফার মার্চেন্ট তার বইয়ে প্রথমবার নতুন একটি শব্দের উদ্ভাবন করেছেন, যেটা হচ্ছে ‘অনলিনেস’। যেটা বোঝায়, শব্দ, জ্ঞান, অনুভূতি, ভালোবাসা, আশা এবং সকল ধরণের বিশেষণগুলোকে পেছনে ফেলে একাই দাঁড়িয়ে থাকা। যে দাঁড়িয়ে থাকার মাঝে শুধুই নিজের সত্তা অবস্থান করে আর অনুভূতিগুলো অনেক দূরে চলে যায়। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৭০০ টাকায়।

দ্যা নেট এন্ড দ্যা বাটারফ্লাই: এই বইটি লিখেছেন অলিভিয়া ফক্স কেবেইন এবং ইয়ুডাহ পোল্যাক। এই বইয়ে তারা মানুষের সাইকোলজি ব্যবহার করে ও সেটাকে কাজে লাগিয়ে পার্সোনালিটি ডেভেলপ করার পদ্ধতি সম্পর্কে বলেছেন। তারা এটাকে ধরে নিয়েছেন প্রজাপতির মতো। অর্থাৎ যখন প্রজাপতি উড়ে তখন এর পাখা দেখা যায় না, যা বিশ্রামহীন। এমনকি প্রজাপতি বিশ্রাম নেয়ার সময়ও পাখা নাড়িয়ে যায়।

প্রত্যেকটা মানুষই চায় নিজের মন ও অনুভূতিগুলোকে নিয়ন্ত্রণ করে জীবনে সফলতা লাভ করতে। কিন্তু সেটা সম্ভব হয় না, কারণ আমাদের মন ও শরীর দুইই বিশ্রামহীন। এমনকি শরীর যখন বিশ্রাম নেয়, তখনও মন বিশ্রামহীন অবস্থাতেই থাকে। সেই মন ও দেহ নিয়ন্ত্রন করার পদ্ধতি নিয়েই কথা বলা হয়েছে এখানে। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ১২০০ টাকায়।

রিচ ড্যাড, পোর ড্যাড: এই বইটি লিখেছেন জাপানিজ-আমেরিকান ব্যবসায়ী ও বিখ্যাত লেখক রবার্ট কায়োসাকি। এই বইটি মূলত লেখকের জীবন কাহিনী ধারণ করছে। বইটি বেশ কয়েকবছর জাপানিজ বেস্ট সেলার পদবিতে ভূষিত হয়েছে। বলা হয়ে থাকে, যারা অর্থ উপার্জন করতে আগ্রহী ও ফিল্যান্সিং নিয়ে যারা সফলতার চেহারা দর্শন করতে চান, তাদের জন্য এই বইটি পড়া অবশ্যম্ভাবী।

একটি গরিব জাপানিজ পরিবারে জন্মগ্রহণ করা লেখকের জীবন শুরু হয় আমেরিকায় পা রেখে, যেখানে লেখকের সবচেয়ে কাছের বন্ধু ছিল ধনী পরিবারের ছেলে। লেখক বইয়ে দেখান কীভাবে টাকার মূল্য, শিক্ষা খাতে ও সামাজিক খাতে দুটো পরিবারকে অন্যরকম ভাবে গড়ে তোলে। বইটিতে তিনি শিক্ষার পাশাপাশি, অর্থের সম্মান ও মর্যাদা সম্পর্কেও ধারণা দিয়ে থাকেন। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৫০০ টাকায়।

প্লে লাইক অ্যা ম্যান, উইন লাইক অ্যা উইম্যান: এই বইটি লিখেছেন গেইল ইভানস। এই বইটিতে তিনি দেখিয়েছেন, কীভাবে নারী উদ্যোক্তারা কোনো ধরণের ব্যবসায়ীক দক্ষতা বা অতিরিক্ত অর্থ খরচ না করেই সফল উদ্যোক্তা হয়ে মিলিয়নিয়ারদের খাতায় নাম লেখাচ্ছেন। তিনি এখানে নারীদের দ্বারা ব্যবহারকৃত কিছু টুলস সম্পর্কে বলেছেন যেগুলো দ্বারা নারীরা সফলতার পথে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো দেখিয়েছেন, কীভাবে নারীরা বিভিন্ন জায়গায়, ছেলেদের সাথে টক্কর দিয়ে এবং বিভিন্ন জায়গায় কীভাবে নারীদের আসল রূপ দেখিয়ে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে। লেখক এখানে মজাদার ও আকর্ষণীয় কিছু তত্ত্ব যুক্ত করে বইটিকে আরো বেশি চিত্তাকর্ষক করে তুলেছেন। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৭০০ টাকায়।

লিভিং দ্যা মিস্টেরী অফ লাইফ: এই বইটি লিখেছেন আর্ট অফ লিভিং ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও ‘ইয়োগা গুরু’ হিসেবে পরিচিত বিখ্যাত লেখক শ্রী শ্রী রবিশঙ্কর। তিনি এই বইয়ে মানুষের সাধারণ কিন্তু সবচেয়ে ভয়ানক কিছু সমস্যা, যেমন: শারীরিক রোগ-শোক, অর্থ সংকট, পারিবারিক সমস্যা ও মানসিক সমস্যার সমাধান নিয়ে লিখেছেন। এবং এসব সমস্যার উৎপত্তি সম্পর্কে বলার চেষ্টা করেছেন। তিনি এই বইয়ে নির্দিষ্ট কোনো ধর্ম নিয়ে বলেননি, বরঞ্চ এখানে তিনি বিশ্বাস, সংস্কৃতি ও জাতীয়তার উর্ধ্বে গিয়ে কথা বলেছেন। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৩০০ টাকায়।

র‍্যান্ডম হাউস আনএব্রিজড ডিকশনারি: এই বইটি লেখা হয়েছে আমেরিকার পেঙ্গুইন র‍্যান্ডম হাউস থেকে। এটি মূলত একটি সাধারণ জ্ঞানের বই, যেখানে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে ৩ লক্ষ ২০ হাজার তথ্য, ২৪০০ ইলাস্ট্রেশন, ৭৫ হাজার উদাহরণ এবং ৪৫ পেইজের চার্ট ও টেবিল। ক্যারিয়ার ডেভেলপমেন্টের ক্ষেত্রে পার্সোনালিটি ও মানুষের সাইকোলজি কীভাবে কাজ করে, সেটাই এখানে বর্ণিত হয়েছে। শিক্ষার্থী, কর্মচারী ও ব্যবসায়ীদের এই বইটি অবশ্যই পড়া উচিত। অ্যামাজন থেকে বইটি কিনতে পারেন মাত্র ৫০০০ টাকায়। তথ্যসূত্র: ইন্টারনেট।

More News Of This Category