1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

পাল্টে যাচ্ছে মংলা বন্দরের চিত্র

মোংলা বন্দরে বিদেশী জাহাজ আগমন, নির্গমন ও পণ্য খালাস ধারাবাহিকভাবে বাড়ছে। গত অক্টোবরে রেকর্ডসংখ্যক জাহাজ ভিড়েছে এ বন্দরে। এছাড়া চলতি অর্থবছরের প্রথম চার মাসে রাজস্ব গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে ১৬ শতাংশেরও বেশি। এদিকে এ বন্দরে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে।

এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বন্দরের চিত্রই পাল্টে যাবে বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ। বন্দর সূত্রে জানা গেছে, এক দশক আগেও লোকসান গুনতে হতো কর্তৃপক্ষকে। ২০০৮ সাল থেকে গাড়ি, খাদ্যশস্য, সার ও ক্লিংকার আমদানি এবং হিমায়িত পণ্য রফতানি শুরু হওয়ায় এখন লাভজনক প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। বন্দরে জাহাজ আগমন-নির্গমন বৃদ্ধিতে শ্রমিকদের কাজও বেড়েছে।

বন্দর সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪-১৫ অর্থবছরে বন্দরে মোট জাহাজ এসেছে ৪১৬টি, আয় হয়েছে ১৭০ কোটি ১৬ লাখ ৬০ হাজার টাকা। ২০১৬-১৭ অর্থবছরে জাহাজ এসেছে ৬২৩টি, আয় হয়েছে ২২৯ কোটি ৬৯ লাখ ৫০ হাজার টাকা। ব্যয় হয়েছে ১৫৬ কোটি ৪৩ লাখ ৯৬ হাজার টাকা। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে জাহাজ এসেছে ৭৮৪টি এবং রাজস্ব আয় হয়েছে ২৭৬ কোটি ১৪ লাখ ৪৯ হাজার টাকা।

সর্বশেষ ২০১৮-১৯ অর্থবছরে মোংলা বন্দরে জাহাজ এসেছে ৯১২টি। রাজস্ব আয় হয়েছে ৩২৯ কোটি ১২ লাখ ১৩ হাজার টাকা। আর ব্যয় হয়েছে ১৯৬ কোটি ১১ লাখ ৫২ হাজার টাকা। বন্দরের কর্মকর্তা-কর্মচারীর বেতন-ভাতা, নিজস্ব জাহাজের জ্বালানি খরচসহ পাঁচটি খাতে এ অর্থ ব্যয় হয়েছে বলে জানিয়েছে বন্দর কর্তৃপক্ষ।

মোংলা বন্দরের ঊর্ধ্বতন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, চলতি অর্থবছরের প্রথম চার মাসে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ১৬ দশমিক ৬১ শতাংশ বেশি রাজস্ব আয় হয়েছে। এ সময় বিদেশী জাহাজ আগমন বেড়েছে ৯ দশমিক ৮৬ শতাংশ এবং নির্গমন বেড়ে ৭ দশমিক ৪১ শতাংশ। সেই সঙ্গে পণ্য হ্যান্ডলিং ১০ দশমিক ৬৯ শতাংশ বেড়ে ৩ লাখ ২৪ হাজার টন হয়েছে।

বন্দরের ঊর্ধ্বতন হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা মো. মাহফুজুর রহমান জানান, অক্টোবরে বিদেশী জাহাজ আগমন ৯৩টি, নির্গমন ৯০টি, পণ্য হ্যান্ডলিং হয়েছে ১১ লাখ ৮৮ হাজার টন। এ সময় রাজস্ব আয় হয়েছে ৩২ কোটি ১৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা, যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১৫ কোটি ৭০ লাখ ২৩ হাজার টাকা বেশি। তিনি জানান, অক্টোবরে গত বছরের একই মাসের তুলনায় জাহাজ আগমন বেড়েছে ১৩টি, নির্গমন বেড়েছে ১৪টি।

পণ্য হ্যান্ডলিং বেড়েছে ১৮ দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ। পাশাপাশি রাজস্ব বেড়েছে ১৯ দশমিক ১৩ শতাংশ। মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এ মোজাম্মেল হক বলেন, এখন প্রতিদিনই বিভিন্ন পণ্য নিয়ে এ বন্দরে নতুন নতুন জাহাজ আসছে। অক্টোবরে রেকর্ডসংখ্যক জাহাজ এসেছে এ বন্দরে। বিদেশী জাহাজ থেকে ১১ লাখ ৮৮ হাজার টন পণ্য হ্যান্ডলিং হয়েছে।

আমদানি করা এসব পণ্য থেকে বন্দরের ৩২ কোটি ১৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা রাজস্ব আয় হয়েছে। তিনি বলেন, সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি, অবকাঠামোগত উন্নয়ন এবং বন্দর ঘিরে সরকারের নানা পরিকল্পনার কারণে এ বন্দরে জাহাজের সংখ্যা বেড়েছে। এ বন্দরে প্রায় ৮ হাজার কোটি টাকার বিভিন্ন প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। আগামী তিন-চার বছরের মধ্যে এসব প্রকল্প বাস্তবায়ন হলে বন্দরের চিত্র পাল্টে যাবে। তথ্যসূত্র: বনিকবার্তা।

More News Of This Category