1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

সুখী হতে চাইলে প্রতিদিনের জন্য বাঁচুন!

ভবিষ্যতের চিন্তায় মগ্ন আমরা সবাই। খুব কম মানুষ আছেন যারা ঘুমের মধ্যে স্বপ্নে হয়ত অতীত দেখেন। আমার সাথে আপনিও একমত হবেন, আমাদের কল্পনাশক্তির বেশীর ভাগ সময় আমরা ব্যয় করি ভবিষ্যতের ভাবনা ভেবে। ভবিষ্যত সব সময় অনিশ্চিত। আগামীকাল নয়, একমুহুর্ত পরে কি ঘটবে সে বিষয়েও অনিশ্চিত আমরা। তবে হয়ত অতীত ও বর্তমান পর্যালোচনা করে অনুমান করে নিতে পারবেন কিছুটা। কিন্তু অদূর ভবিষ্যত সম্পর্কে আমরা কেউ অবগত নই।

আপনি এই মুহুর্তে পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে ভাগ্যবান ব্যাক্তি। কারন আপনি বেঁচে আছেন। নিঃশ্বাস প্রশ্বাস এখনও সচল আছে আপনার। তাহলে আপনি কেন অযথা আগামীকালের জন্য দুঃচিন্তা করছেন? আপনি যে মুহুর্তে আপনার দৈনন্দিন কাজে ব্যস্ত ঠিক সেই একই সময়ে বহু মানুষ হাসপাতালের বেডে শুয়ে বেঁচে থাকার যুদ্ধে টিকে থাকার লড়াই করছে।

আপনি পৃথিবীর সবচেয়ে ভাগ্যবান মানুষ। আপনি যখন ভূমিষ্ট হয়েছিলেন তখন আপনার পরনে এক টুকরো কাপড়ও ছিল না। এখন আপনার পরনে বস্ত্র আছে। নিজেকে দুভার্গ্যবান ভাবার কিছু নেই। আপনি আপনার চারপাশে চোখ মেলে চেয়ে দেখুন সৃষ্টিকর্তা আপনাকে কতটা পূর্ণতা দিয়ে পাঠিয়েছেন। তিনি চাইলে আপনাকে অন্ধ, বিকলঙ্গ কিংবা মানষিক ভারসাম্যহীন ভাবেও পাঠাতে পারতেন।

আপনার কি আছে? আপনি কি অর্জন করতে পেরেছেন সেই হিসাব মেলাতে যখন ব্যস্ত ঠিক তখনই চেয়ে দেখুন আপনার পাশেই কেউ একজন অভূক্ত থেকেও সৃষ্টিকর্তার শোকর করছেন। কাফনের কাপড়ের কোন পকেট নেই যে আপনি দুনিয়া থেকে পরপারে কিছু নিয়ে যেতে পারবেন। অযথা নিজেকে কেন অভাবী করে তুলছেন ভবিষ্যতের দুঃচিন্তায় ।

অর্থবিত্ত নেই, গাড়ি নেই, বাড়ি নেই, বউ নেই এমন যখন অবস্থা তখন এই মুহুর্ত থেকে প্রতিদিনের জন্য বাঁচার চেষ্টা করুন। ধরে নিন আগামীকাল আপনি এই পৃথিবীতে নেই। আজকের দিনটি আপনি আপনার মত করে উপভোগ্য করুন। প্রতিদিনের চাহিদার যতটকু পারেন মেটানোর চেষ্টা করুন। আনন্দ আর ফূর্তিতে সময়গুলো পার করুন। আপনি আগমীকাল না থাকলেও এমন কিছু করার চেষ্টা করুন যাতে আপনার কথা মানুষ স্বরণ করে।

আপনি কে ছিলেন তা মনে রাখার সময় পৃথিবীর কাছে নেই। আপনি পৃথিবীর জন্য কি দিয়ে গেছেন তা স্মরণীয় করে রাখার ব্যবস্থা এ পৃথিবীর কাছে আছে। অন্যেরা কত সম্পদ আর কত সম্মান অর্জন করল তার হিসাব কষা বাদ দিন। নয়তো আপনি অভাবী হয়ে পড়বেন। আপনার যা আছে তা নিয়ে তুষ্ট থাকতে পারার মধ্যেই সবচেয়ে বড় সুখ। আপনি যা পাননি তা আপনার জন্য বরাদ্দ ছিল না। আপনি যা পেয়েছেন তা শুধু আপনার জন্যই।

অনেকেই নিজেকে দেখতে অসুন্দর বলে আফসোস করেন। নামী-দামী ব্র্যান্ডের প্রসাধনী আর একটু সুন্দর দেখানোর দীর্ঘ প্রচেষ্টায়, দিনের একটা বড় সময়ের সাথে অর্থের অপচয় নিত্যই করছেন। ইতিমধ্যে রং ফর্সাকারী ক্রিম আর প্রসাধনীর গোডাউন করে ফেলছেন নিজের রুম। একটা কথা বিশ্বাস করুন আপনি খাটো, কালো কিংবা মোটা যাই হোন সৃষ্টিকর্তা আপনাকে এভাবে সৃষ্টি করার মধ্যেও উদ্দেশ্য আছে। কারন তিনি সর্বজ্ঞানের অধিকারী, তিনি যা বোঝেন আমরা তা কল্পনায়ও আনতে পারি না।

প্রতিদিনের জন্য বাঁচুন। অতীত থেকে শিক্ষা গ্রহন করুন। বর্তমানের চলার পথকে সহজ করুন। ক্ষমা করা শিখুন। ক্ষমা মহৎ গুণগুলোর মধ্যে অন্যতম। মনের মধ্যে ক্ষোভ রেখে আপনি কখনোই শান্তিতে থাকতে পারবেন না। চলার পথে সবার সাথে বন্ধুর মত আচরণ করুন। নিজেকে সৎ চরিত্রবান হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন। আপনার ভবিষ্যত নিয়ে আপনাকে চিন্তা করতে হবে না। বর্তমান আপনার ভবিষ্যত গড়ে দিবে।

লেখক:
মোঃ মাসুদুর রহমান মাসুদ
উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকম।

More News Of This Category