1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

প্রতিদিন ৩০ হাজার মানুষ ভারতে চাকরী হারাচ্ছে

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সমালোচনা করে কংগ্রেসের সভাপতি রাহুল গান্ধী বলেছেন, ‘বছরে এক কোটি টাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন মোদিজি। কিন্তু চাকরি হয়নি। উপরন্তু দিনে ৩০ হাজার লোক চাকরি খোয়াচ্ছেন।’

উত্তর-পূর্ব ভারতে এএ অভিযোগ করেন তিনি। মণিপুর ও ত্রিপুরায় কংগ্রেসের নির্বাচনী জনসভায় অংশ নেন রাহুল গান্ধী। ১১ এপ্রিল থেকে শুরু হচ্ছে লোকসভার ভোট। তার আগে দলকে চাঙা করতে গতকাল মঙ্গলবার থেকে শুরু হয় রাহুলের উত্তর-পূর্ব ভারত সফর।

উত্তর-পূর্ব ভারতের ভাষা, সংস্কৃতি ও ঐতিহ্য রক্ষার প্রতিশ্রুতি দিলেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। সেই সঙ্গে এই অঞ্চলের উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব প্রদানেরও তিনি প্রতিশ্রুতি দিয়ে যান।

এদিন ত্রিপুরা সফরকালে খুমলুঙে রাহুল দাবি করেন, দিল্লি ও ত্রিপুরায় কংগ্রেসেরই সরকার প্রতিষ্ঠিত হবে। আর কংগ্রেস ক্ষমতায় এলেই মন দেবে উত্তর-পূর্ব ভারতের উন্নয়নে।

স্থানীয় বিভিন্ন জনজাতি মানুষের আবেগকে গুরুত্ব দিয়ে কংগ্রেস সভাপতির ঘোষণা, ‘নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করা হবে না। রক্ষা করা হবে এখানকার সাহিত্য, সংস্কৃতি ও পরম্পরা। একমাত্র কংগ্রেসই পারে উত্তর-পূর্ব ভারতকে সুরক্ষা দিতে।’ সেই সঙ্গে উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলোকে ফের বিশেষ মর্যাদা দেওয়ার কথা ঘোষণাও করেন তিনি।

বিজেপি সরকার ভারতের নাগরিকত্ব আইন সংশোধন করে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও আফগানিস্তানের অমুসলিম শরণার্থীদের শর্তসাপেক্ষে নাগরিকত্ব দিতে চেয়েছিল। এর প্রতিবাদে সোচ্চার হয় উত্তর-পূর্ব ভারত। লোকসভায় পাস করিয়েও বিজেপি রাজ্যসভায় সেটা আর পাস করাতে পারেনি।

ভারতের নোটবন্দী থেকে শুরু করে পণ্যসেবা কর বা জিএসটির কড়া সমালোচনা শোনা যায় কংগ্রেস সভাপতির গলায়। তিনি কটাক্ষ করেন, ‘জিএসটি আসলে গব্বর সিং ট্যাক্স।’

অরুণাচলের রাজধানী ইটানগর থেকে মণিপুরের রাজধানী ইম্ফল। সেখান থেকে ত্রিপুরার খুমলুং। সব জায়গাতেই কংগ্রেস সভাপতিকে দেখতে প্রচুর মানুষ ভিড় করেন।

আজই উত্তর-পূর্ব ভারত সফর শেষে দিল্লি উড়ে যান রাহুল গান্ধী। ত্রিপুরা প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি প্রদ্যোত কিশোর দেববর্মণের দাবি, ‘রাহুলজির এই সফরে গোটা উত্তর-পূর্ব ভারতেই কংগ্রেসিরা উজ্জীবিত।’

More News Of This Category