1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

বছরে এক লাখ হোন্ডা মোটরসাইকেল তৈরি হবে দেশে!

মোটরসাইকেল জগতে হোন্ডা এক অনন্য নাম। এই ব্র্যান্ড এখন বাংলাদেশের বাজারে যুক্ত হলো। এখন থেকে ব্র্যান্ড হোন্ডা তৈরি হবে বাংলাদেশে।

বাংলাদেশ ও জাপানের যৌথ উদ্যোগে মুন্সীগঞ্জের গজারিয়ায় হোন্ডার মোটরসাইকেল কারখানা করা হয়েছে।

রোববার গজারিয়ার বাউশিয়া এলাকার আবদুল মোমেন অর্থনৈতিক অঞ্চলে এই কারখানার উদ্বোধন হয়। শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কারখানাটির উদ্বোধন করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন ইন্টার-পার্লামেন্ট ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট সাবের হোসেন চৌধুরী এমপি, বাংলাদেশ ইকোনমি জোনের নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী, বাংলাদেশ স্টিল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান ও বাংলাদেশ হোন্ডা প্রাইভেট লিমিটেডের পরিচালনা পর্ষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান, বাংলাদেশে নিযুক্ত জাপানি রাষ্ট্রদূত হিরোয়াসু ইজুমি।

জাপানের মোটরসাইকেল কোম্পানি হোন্ডা এবং বাংলাদেশ শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন স্টিল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশনের (বিএসইসি) যৌথ মালিকানায় এই কারখানাটি পরিচালিত হচ্ছে।

এর মধ্য দিয়ে ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের মাত্র ১ বছরের মধ্যে কারখানাটি বাণিজ্যিক উৎপাদনে যেতে সক্ষম হলো।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, এটি জাপান ও বাংলাদেশের বিনিয়োগের একটি সফল দৃষ্টান্ত। আজ থেকে এতে বাণিজ্যিকভাবে উৎপাদন শুরু হচ্ছে।

‘এটি বাংলাদেশের জন্য একটি স্মরণীয় দিন। দীর্ঘ ৫ বছরের প্রচেষ্টায় হোন্ডা ব্র্যান্ডের মোটরসাইকেল সংযোজন থেকে নিজস্ব ফ্যাক্টরিতে উৎপাদন শুরু হলো। আমার বিশ্বাস এর মাধ্যমে জাপান বাংলাদেশর দ্বি-পাক্ষিক বিনিয়োগ সম্পর্ক আরও জোরদার হবে।’

মুন্সীগঞ্জে ২৫ একর জমিতে ২৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত এ কারখানায় ৭০ ভাগ বিনিয়োগ হোন্ডার। আর ৩০ ভাগ বিনিয়োগ বাংলাদেশ স্টিল অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং কর্পোরেশনের। ফ্যাক্টরিতে বছরে ১ লাখ মোটরসাইকেল উৎপাদনের ক্ষমতা রয়েছে। বাজারের প্রবণতা বুঝে এ ফ্যাক্টরিতে ২০২১ সালের মধ্যে ২ লাখ মোটরসাইকেল উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে।

নতুন এ ফ্যাক্টরি চালু হওয়ায় যেমন কর্মসংস্থানের সৃষ্টি হবে, তেমনি এখানকার কর্মীরাও আধুনিক প্রযুক্তি সম্পর্কে জানতে ও কাজ করতে সক্ষম হবে বলে আশা করা হচ্ছে।

More News Of This Category