1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :

বিশ্বের সবচেয়ে দামি চা!

চা ছোট্ট একটি শব্দ। তবে শব্দটির সঙ্গে মানুষের সম্পর্ক বেশ গভীর। বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় পানীয় চা। হাজার বছর ধরে দেশে দেশে, অঞ্চলে অঞ্চলে চায়ের জনপ্রিয়তা উত্তরোত্তর বেড়েছে। ধারণা করা হয় চীনে চায়ের জন্ম। তবে বর্তমানে বিশ্বের এমন কোনো দেশ কিংবা অঞ্চল খুঁজে পাওয়া যাবে না, যেখানে চা পৌঁছায়নি।

উৎসব-অনুষ্ঠান থেকে শুরু করে মানুষের প্রাত্যহিক জীবন, সবখানেই চা সমান জনপ্রিয়। সমাজ, রাজনীতি, অর্থনীতি, সংস্কৃতি, এমনকি যুদ্ধের সঙ্গেও জড়িয়ে আছে চা। সকালে খবরের কাগজের সঙ্গে এক কাপ ধোঁয়া ওঠা চা দিনের শুরুটা বদলে দিতে পারে। চায়ের টেবিলের রাজনৈতিক আড্ডা আমাদের সংস্কৃতির অংশ হয়ে গেছে।

চা শুধু প্রাত্যহিক ব্যবহার্য পণ্য নয় বরং বিলাসদ্রব্য হিসেবেও সুনাম কুড়িয়েছে। অনেক দেশেই আকাশছোঁয়া দামের চা পাওয়া যায়। এমনই কিছু দামি চা নিয়ে বণিক বার্তার ধারাবাহিক আয়োজনের আজ শেষ পর্ব

পিজি টিপস ডায়মন্ড টি ব্যাগ
বিশ্বের সবচেয়ে দামি চায়ের তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রিটেনের পিজি টিপস ডায়মন্ড টি ব্যাগ। পিজি টিপস ইউনিলিভার ইউকের একটি জনপ্রিয় চায়ের ব্র্যান্ড। ২০০৫ সালে প্রতিষ্ঠানটির ৭৫তম বর্ষপূর্তিকে কেন্দ্র করে তৈরি করা হয় পিজি টিপসের একটি বিশেষ টি ব্যাগ, যা বিশ্বের সবচেয়ে দামি টি ব্যাগের স্বীকৃতি পায়। হীরাযুক্ত টি ব্যাগটির দাম ধরা হয় ১৫ হাজার ডলার।

ইউনিলিভার ইউকের ৭৫তম বর্ষপূর্তিকে স্মরণীয় করে রাখতেই তৈরি হয় পিজি টিপস ডায়মন্ড টি ব্যাগ। এতে যুক্ত করা হয় ছোট ছোট ২৮০টি হীরা। টি ব্যাগটিতে সুতার বদলে ব্যবহার করা হয় রুপার চেইন। বাহ্যিক আভিজাত্যের পাশাপাশি এ টি ব্যাগে ব্যবহার করা হয় বিশ্বের অন্যতম দামি সুগন্ধি চা।

চায়ের স্বতন্ত্র ফ্লেভার ও বাহ্যিক আভিজাত্য সব মিলিয়ে টি ব্যাগটি দ্রুতই ইউরোপ-আমেরিকার অভিজাতদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। পরবর্তী সময়ে ম্যানচেস্টার চিলড্রেন্স হসপিটালের এক নিলামে এটি দাতব্য কাজের জন্য দান করা হয়।

দা-হং পাও টি
চা নিয়ে চীনাদের গল্পগাথার শেষ নেই। এসবের কতটা সত্য, তা এখন আর যাচাই করা সম্ভব নয়। এমনই একটি গল্প আছে দা-হং পাও চা নিয়ে। চীনের মিং সাম্রাজ্যের রাজমাতা একবার ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি দা-হং পাও চা খেয়ে আরোগ্য লাভ করেন। সেই থেকে চীনাদের কাছে এ চা বিশেষ মর্যাদা পেয়েছে।

চীন সরকার দা-হং পাও টি-কে রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি ঘোষণা করেছে। উৎপাদন প্রক্রিয়া সচেতনভাবে গোপন রাখা হয়েছে। এমনকি দেশটির উয়ি পর্বতের যেসব বাগানে এ চা আবাদ হয়, সেখানে সরকারের পক্ষ থেকে পাহারা বসানো আছে। বর্তমানে শুধু চীনের রাষ্ট্রীয় অতিথিদের এ চা খেতে দেয়া হয়।

বিশেষ মর্যাদা ও দুষ্প্রাপ্যতা এ দুটি কারণ দা-হং পাও টি-কে বিশ্বের সবচেয়ে দামি চায়ের স্বীকৃতি দিয়েছে। বিশেষ এ চায়ের দাম ধরা হয় কেজিপ্রতি ১২ লাখ ডলার।

More News Of This Category