1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :
সফলতার গল্প :

ব্যবসায় সফলতার ম্যাজিক দক্ষ ম্যানেজমেন্ট

ম্যানেজমেন্ট বিষয়ে পড়াশোনার চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। এরকম কোর্স সম্পন্ন করে খুব সহজেই ভালো বেতনের চাকরিতে প্রবেশ করা যায়। ফলে আগ্রহটা স্বাভাবিক। কিন্তু এই ম্যানেজমেন্ট নিয়ে অনেকের স্বচ্ছ ধারণা নেই। ফলে তারা আগ্রহ দেখায় কম। বর্তমান প্রেক্ষাপটে যে কোনো ব্যবসার মূলমন্ত্র দক্ষ ম্যানেজমেন্ট।

কোম্পানি প্রোডাক্ট (যেমন- সাবান, তেল, বডি লোশন ইত্যাদি) তৈরি করে। এরপর তা বিক্রি করে। তৈরি করার খরচ আর বিক্রি করার দাম, এ দুইয়ের পার্থক্যটাই হলো ব্যবসার লাভ। আর তাই ক্রেতাদের খুশি রেখে যতটা সম্ভব আয় বাড়ানো আর চিন্তাভাবনা করে সাধ্য মতো ব্যয় কমানো এটাই যে কোনো ব্যবসার লক্ষ্য। আর এই লক্ষ্যে পৌঁছানোর চেষ্টাকেই একটা কোম্পানির ব্যবস্থাপনা বা ম্যানেজমেন্ট বলে।

এমনকি ব্যবসা পরিচালনার বিভিন্ন কার্যক্রম নির্ভর করে ম্যানেজমেন্টর উপর। যদি কেউ মেশিন তৈরি করে, তা হলে তার পরিচালনা করার ধরনটা এক রকম হবে; কেউ যদি হোটেল চালায়, তা হলে আর এক রকম হবে; আবার কেউ যদি দাঁতের মাজন বা কাপড় কাচার সাবান তৈরি করে, তাহলে সেটা বেশ অন্য রকম হবে।

যে কোনো কোম্পানির পণ্য উৎপাদন থেকে বিক্রি পর্যন্ত একটু নজর দিলে ম্যানেজমেন্টের বিভিন্ন দিক খুব সহজেই অনুভব করা যায়। কোম্পানির উৎপাদনকে প্রোডাকশন ম্যানেজমেন্ট বা উৎপাদনের ব্যবস্থাপনা বলা হয়। উৎপাদনের জন্য প্রথমেই ভাবতে হবে কাঁচামালের কথা, যা দিয়ে কোম্পানির প্রোডাক্ট তৈরি হবে। সেই মাল ঠিক গুণমানের কেনা এবং ঠিক দামে কেনাটা জরুরি।

অনেক সময়ই কোম্পানি নিযুক্ত বিজ্ঞানীরা নানা রাসায়নিক পরীক্ষা করে কাঁচামালের গুণ সম্পর্কে নিশ্চিত হন। আর দরাদরি তো থাকেই। এ ছাড়াও ভাবতে হয় কাঁচামালের জোগানের ব্যাপারে। মেশিন চলতে চলতে যদি কাঁচামাল ফুরিয়ে যায়, তা হলে তো উৎপাদন আটকে যাবে; মেশিন বন্ধ করে দিতে হবে। আর যারা মেশিনে কাজ করেন, তাদের কাজ থাকবে না, অথচ বেতন দিয়ে যেতে হবে।

এতে কোম্পানির লোকসান। আবার উল্টা দিকে, এই ভয়ে যদি প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি কাঁচামাল কিনে রাখা হয়, তা হলেও বিপদ। অতিরিক্ত মজুদের কারণে অতিরিক্ত পুঁজি আটকে থাকবে। ফলে অন্য কাজে টাকা লাগলে ব্যাংক থেকে ধার করতে হবে। আর সেই সুদটা হবে অতিরিক্ত খরচ। ফলে ঠিক সময়ে সঠিক পরিমাণ কাঁচামাল ক্রয় করাও ব্যবস্থাপনার একটি অনুষঙ্গ।

যদি কোনো ম্যানেজিং ডিরেক্টরকে বা কোনো ব্যবসায়ীকে প্রশ্ন করা হয়, তার কোম্পানির সবচেয়ে মূল্যবান সম্পদ কোনটি- প্রযুক্তি, আর্থিক বল, না ব্র্যান্ডের জনপ্রিয়তা? তার উত্তর খুব সম্ভবত হবে কোনোটাই নয়। যে কোনো কোম্পানির সবচেয়ে বড় সম্পদ হলো সেই প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা।

সবচেয়ে বড় ভরসার জায়গা হলো সেই প্রতিষ্ঠানের মানবসম্পদ। আর এই মানবসম্পদ বিভাগকেও দেখভালের দায়িত্ব দক্ষ ম্যানেজমেন্টের। সবমিলিয়ে যে কোনো ব্যবসার সফলতা নির্ভর করে তার ম্যানেজমেন্টের ওপর। কারণ দক্ষ ম্যানেজমেন্ট হল একটি কোম্পানির শক্তিঘর। বিজ্ঞানের ভাষায় মাইটোকন্ড্রিয়া যেমন কোষের শক্তিঘর ঠিক তেমনি দক্ষ ম্যানেজমেন্টের ভূমিকাও তদ্রুপ। -ক্যারিয়ার ডেস্ক তথ্যসূত্র: বিডি প্রতিদিন।

More News Of This Category