1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :
সফলতার গল্প :

ব্যবহারের ২ দিনেই ভেঙে যাচ্ছে স্যামস্যাং গ্যালাক্সি ফোল্ডের ডিসপ্লে

বাজারে আসার আগেই ঝামেলায় পড়ল স্যামসাংয়ের প্রথম ভাঁজযোগ্য স্মার্টফোন গ্যালাক্সি ফোল্ড। কয়েকবার ভাঁজ করার পরই ফোনটির ডিসপ্লে ভেঙে যাচ্ছে! রিভিউর জন্য দেয়া অন্তত চারটি ফোনের ব্যাপারে এমন অভিযোগ এসেছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখার কথা জানিয়েছে স্যামসাং। খবর রয়টার্স, বিজনেস স্ট্যান্ডার্ড।

গ্যালাক্সি ফোল্ড ২৬ এপ্রিল থেকে যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বিক্রির কথা রয়েছে। ডিভাইসটির দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১ হাজার ৯৮০ ডলার। নমনীয় ডিসপ্লের এ স্মার্টফোনটির ভাঁজ খুললেই ট্যাবলেটে রূপান্তরিত হয়। স্যামসাং দাবি করছে, এ ফোনের ডিসপ্লে দুই লাখ বার পর্যন্ত ভাঁজ ও খোলার মতো টেকসই।

বাজারে ছাড়ার আগে কয়েকটি নমুনা ফোন প্রযুক্তি সাংবাদিকদের কাছে পাঠানো হয়েছিল। চলতি সপ্তাহেই ব্লুমবার্গ, ভার্জ ও সিএনবিসির প্রযুক্তি-বিষয়ক সাংবাদিকদের হাতে পৌঁছে গ্যালাক্সি ফোল্ড। পর্যালোচনা শেষে টুইটারে ফোনটির ডিসপ্লেতে ত্রুটির বিষয়ে টুইট করেন তারা। তারা বলেছেন, ফোনের পর্দায় চির ধরছে বা এ রকম কিছু একটা সমস্যা হচ্ছে।

ব্লুমবার্গের প্রতিবেদক মার্ক গুরম্যান টুইটারে বলেছেন, ব্যবহারের দুদিনের মধ্যেই পর্দা পুরোপুরি ভেঙে গেছে এবং ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। তবে অধিকাংশ গ্যালাক্সি ফোল্ডেই এমন সমস্যা দেখা দেবে কিনা বলা মুশকিল।

গুরম্যানের টুইট থেকে আরো জানা যাচ্ছে, পর্দার ওপর থাকা প্লাস্টিকের আবরণটি তিনি খুলে ফেলেছিলেন। স্যামসাংয়ের পক্ষ থেকে এ আবরণটি তুলে না ফেলার নির্দেশনা আছে। গুরম্যানের দাবি, বিষয়টি তিনি জানতেন না। এ নির্দেশনার বিষয়ে না জানার কথা বলেছেন টেক ইউটিউবার মারকুইস ব্রাউনলিও।

তবে ভার্জের সম্পাদক ডিয়েটার বন প্লাস্টিকের আবরণটি না খোলার পরও গ্যালাক্সি ফোল্ডের পর্দায় সমস্যা পেয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, ফোনটির পর্দা ভাঁজ করার পর আড়াআড়ি একটি রেখার মতো দেখা যায়। এটি জানানোর পর স্যামসাং তাকে নতুন আরেকটি ফোন দিয়েছে, তবে এ সমস্যার কারণ তারা জানায়নি। একই অভিজ্ঞতার কথা জানিয়েছেন সিএনবিসির সাংবাদিক স্টিভ কোভাক।

সমালোচকরা বলছেন, রিভিউয়ারদের বক্তব্যে স্পষ্ট: ফোনের প্লাস্টিকের আবরণ তুলে ফেলার বিষয়ে স্যামসাং পরিষ্কার নির্দেশনা দিতে ব্যর্থ হয়েছে। ডিভাইসটির প্রাক-ক্রয়াদেশ নেয়ার সময়ই ক্রেতাদের এটি সুন্দরভাবে বুঝিয়ে দেয়া উচিত বলে মনে করেন তারা।

রিভিউদাতারা আলাদা অভিজ্ঞতার কথা জানালেও স্যামসাং প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে, মূল ডিসপ্লে থেকে সুরক্ষাকারী প্লাস্টিকের আবরণটির সরিয়ে ফেলার কারণেই সমস্যা দেখা দিয়ে থাকতে পারে। ক্রেতাদের বিষয়টি পরিষ্কারভাবে জানিয়ে দেয়ার কথাও বলেছেন তারা।

এদিকে বর্তমান পরিস্থিতিতে স্যামসাংয়ের প্রযুক্তি ব্যবসার অনেকখানিই এখন নির্ভর করছে গ্যালাক্সি ফোল্ডের বাজার চাহিদার ওপর। ১০ লাখ ফোল্ড বানাতে চায় তারা। যেখানে বছরে ৩০ কোটি ইউনিট ফোন বানায় এ কোরীয় জায়ান্ট। এরই মধ্যে অতিরিক্ত চাহিদার কারণে গ্যালাক্সি ফোল্ডের প্রাক-ক্রয়াদেশ নেয়া বন্ধ করে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে স্যামসাং।

ডিভাইসটিতে ত্রুটি থাকার যে অভিযোগ উঠেছে, সে কারণে ফোনটি বাজারে আসার সময়সূচিতে কোনো পরিবর্তন আসবে না বলেও উল্লেখ করেছে কোম্পানিটি। স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি ফোল্ড ডিভাইসটি দেখতে গতানুগতিক ফোনের মতোই, কিন্তু এর ভাঁজ খুলতে হয় বইয়ের মতো করে। ভাঁজ খোলার সেকেন্ডের মধ্যেই এটি ৭ দশমিক ৩ ইঞ্চির (১৮ দশমিক ৫ সেন্টিমিটার) একটি ছোট ট্যাবলেটে রূপান্তরিত হয়ে যায়।

More News Of This Category