1. editor@islaminews.com : editorpost :
  2. jashimsarkar@gmail.com : jassemadmin :

ভালো অভ্যাস তৈরী হোক এখন থেকে

কিছু সু-অভ্যাস বাড়ির প্রতিটি সদস্যই যদি নিজেদের মধ্যে গড়ে তোলেন, তাহলে ঘরদোর যেমন পরিচ্ছন্ন থাকবে, তেমনি গৃহকর্ত্রীর ওপর কাজের চাপও কমবে। ছোট থেকে বড় সবারই ভালো অভ্যাসগুলো আয়ত্ত করে ফেলা উচিত। সেক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে যে অভ্যাস নিজের মধ্যে গড়ে নিতে পারেন—

অন্দরে প্রবেশের আগে জুতা খুলে নিন: বাইরের ধুলা-ময়লা, রোগজীবাণু মূলত জুতার মাধ্যমেই আপনার ঘরে প্রবেশ করতে পারে, যদি ঘরে ঢোকার আগে জুতাজোড়া খুলে না রেখে আসেন। সারা দিন বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের ফলে জুতার সঙ্গে চলে আসে ময়লা, আবর্জনা, জীবাণু। অধিকাংশ ক্ষেত্রেই বাড়িতে ঢোকার সময় তাড়াহুড়াবশত কিংবা আলসেমিতে পায়ের জুতাজোড়াসহ ঢুকে পড়ি অন্দরে, যা একেবারেই অনুচিত।

খুব ভালো হয় সু র্যাক বা জুতা রাখার তাক মূল ফটকের বাইরে রাখা গেলে। তা সম্ভব না হলেও দরজার খুব কাছাকাছি কোথাও রাখাই ভালো। ভেতরে প্রবেশের আগে জুতা খুলে তাকে গুছিয়ে রেখে তবেই প্রবেশ করুন ঘরে। ছোট্ট এ অভ্যাসই আপনার অন্দরকে রাখবে অনেকখানি সুরক্ষিত, ধুলাবালিমুক্ত।

ময়লার ঝুড়ি ব্যবহারের অভ্যাস: সারা দিন বাড়িতে নোংরা ময়লার অভাব হয় না নিশ্চয়ই? যেখানে-সেখানে ফেলে রাখা ময়লা ঘর আরো অনেক বেশি নোংরা করে তোলে। তাই চেষ্টা করুন ময়লা এখানে-সেখানে না ফেলে নির্দিষ্ট ঝুড়িতে ফেলতে। বাড়ির ছোট্ট সোনামণিটিকেও শিখিয়ে দিন ময়লা কোথায় ফেলতে হবে সে বিষয়ে। বাড়িতে শিশুর ঘরটিতে আলাদা ঝুড়ি রাখুন, যাতে পেনসিল কেটে তার নোংরা, কাগজসহ অন্যান্য ময়লা সেখানেই ফেলা যায়।

রান্নাঘর পরিচ্ছন্ন রাখুন: রান্না শেষ হয়েছে বলেই যে কাজ শেষ তা কিন্তু নয়। বরং এর পরও কিছু কাজ থেকেই যায়। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে কিচেন কাউন্টার, সিংক, মেঝে পরিষ্কার করা। রান্না শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই কিচেন কাউন্টারটি হালকা সাবান পানিতে কাপড় বা স্ক্রাবার ভিজিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এর পর শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। ঠিক একইভাবে পরিষ্কার করুন সিংকটিও। সবশেষে মেঝেটি মুছে ফেলুন।

প্রতিবেলা খাবার শেষে টেবিল পরিষ্কার করা: খাওয়া শুরুর আগে যেমন টেবিল প্রস্তুত করার একটি বিষয় রয়েছে, তেমনি খাওয়া শেষ হওয়ার পরও। খাওয়ার শেষে সঙ্গে সঙ্গেই টেবিল পরিচ্ছন্ন করার অভ্যাস থাকা ভালো। একটা আলাদা নরম কাপড় রাখুন শুধু টেবিল পরিষ্কারের জন্য। খাওয়া শেষে সব গুছিয়ে ফেলুন। এবার নরম কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন টেবিলটি। টেবিল টপ কাচের হলে গ্লাস ক্লিনার দিয়ে আলতো করে মুছে ফেলুন।

সাপ্তাহিক পরিচ্ছন্নতা: প্রতিদিন ঘর পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য কাজ করছেন। তবু সপ্তাহে একটা দিন রাখুন বিশেষ পরিচ্ছন্নতার জন্য। পুরো বাসার ঝুল ঝাড়া থেকে শুরু করে স্নানঘর পরিষ্কার করার কাজ সেরে ফেলুন এদিনে। পুরো এক সপ্তাহ অন্দর পরিচ্ছন্ন রাখতে এতটুকু তো করাই যায়।

More News Of This Category