যে ভিসায় পড়াশুনার পড় মিলবে কাজের সুযোগ

উচ্চশিক্ষার জন্য প্রতি বছর আমেরিকায় পাড়ি জমানো শিক্ষার্থীর সংখ্যা একদমই কম না। পড়াশোনা শেষ করার পর আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের কেউবা সেখানেই থাকতে চান কিংবা দীর্ঘদিন থাকার ইচ্ছা পোষণ করেন। সেক্ষেত্রে সবার জন্য সেখানে স্থায়ী হওয়ার সুবিধা না থাকলেও আবেদন করতে পারেন অনেক শিক্ষার্থীই।

যদিও পড়াশোনার পাট চুকিয়ে কীভাবে থাকা যায়, সে বিষয়ে অনেকেরই জিজ্ঞাসা থাকে। এক্ষেত্রে জেনে নিতে পারেন পড়াশোনা শেষ হয়ে গেলেও সে দেশে কাজের সুবাদে অবস্থান করার জন্য আপনি যথেষ্ট যোগ্য কিনা সে ব্যাপারে— যারা আমেরিকায় পড়তে যাওয়ার সময় এফ-১ ভিসা নিয়ে পাড়ি জমিয়েছিলেন সেদেশে, তাদের জন্য পড়াশোনা শেষেও সেখানে অবস্থান করার সুযোগ অন্যদের তুলনায় একটু বেশিই।

এ ভিসাধারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে যারা অপশনাল প্র্যাকটিক্যাল ট্রেনিং বা ওপিটি প্রোগ্রামে অংশগ্রহণ করেন, তারা ১২ মাস পর্যন্ত আমেরিকায় কাজের সুযোগ পান। যে শিক্ষার্থীরা এ প্রোগ্রাম শেষ করেন, মূলত তারাই গ্র্যাজুয়েশন-পরবর্তী কিংবা এক বছর আমেরিকায় অবস্থানের পর দীর্ঘদিন থাকার সুযোগ পান। যদিও এ সুযোগ খুব কমসংখ্যক শিক্ষার্থীই পেয়ে থাকেন।

অন্যদিকে এইচ-১ বি মূলত নন ইমিগ্র্যান্ট ভিসা। এ ধরনের ভিসার সাহায্যে আমেরিকায় থাকার ব্যাপ্তিকাল বাড়াতে পারেন যেকোনো শিক্ষার্থীই। সেক্ষেত্রে গ্র্যাজুয়েশনের পরপরই শিক্ষার্থী চাইলে এফ-১ ভিসাটিকে এইচ-ওয়ান বি ভিসায় নিতে পারেন।

এসব ক্ষেত্রে দেখা যায় সুপরিচিত, নামি কোনো আমেরিকান প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীকে তার পড়াশোনার বিষয় সম্পর্কিত কাজের সুযোগ করে দেয়। ফলে কাজের সুবাদে আমেরিকায় দীর্ঘদিন অবস্থান করারও সুযোগ ঘটে। তবে যারা পুরোপুরি থিতু হতে চান, তাদের ক্ষেত্রে এসব কোনোটাই প্রযোজ্য না।

SHARE