1. uddoktarkhoje@gmail.com : uddoktarkhoje :

রিয়েল এস্টেট ব্যবসার আইডিয়া ও পরামর্শ

বর্তমান সময়ে রিয়েল এস্টেট খুব জনপ্রিয় একটি ব্যবসা ক্ষেত্র। মানুষের আবাসন ব্যবস্থার চাহিদাকে বিবেচনা ও পুঁজি করে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা বিশ্বে আত্মপ্রকাশ করেছে। আধুনিক সময়ে উদ্যোক্তাদের কাছে রিয়েল এস্টেট একটি সম্ভাবনাময় ব্যবসা ক্ষেত্র হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে তরুণ উদ্যোক্তাদের নিকট বর্তমানে এ ব্যবসার গুরুত্ব অপরিসীম।

মানুষের মৌলিক চাহিদাগুলোর মধ্যে অন্যতম হলো বাসস্থান। আমাদের সুন্দরভাবে বসবাস করতে এবং কোনো ব্যবসা পরিচালনার জন্য উপযুক্ত একটি স্থানের প্রয়োজন হয়। যেমন, বিলাসবহুল বাসা, ডুপ্লেক্স বাড়ি, ছোট ফ্ল্যাট, অফিস ভবন, গুদাম, দোকান ইত্যাদি মানুষের নিত্য প্রয়োজনীয় স্থাপনা।

মানুষের এসব প্রয়োজনীয় চাহিদাগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে আপনিও একটি রিয়েল এস্টেট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তুলতে পারেন। এছাড়া বাসা ভাড়া, রিয়েল এস্টেট উদ্যোক্তাদের প্রয়োজনীয় মালামাল সরবরাহ ও পরামর্শ দিয়েও আপনি একটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠা করে অর্থনৈতিকভাবে লাভবান ও স্বাবলম্বী হয়ে উঠতে পারেন।

আপনি যদি নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে রিয়েল এস্টেট ব্যবসা শুরু করতে চান এবং কীভাবে শুরু করবেন তা নিয়ে চিন্তিত হয়ে থাকেন, তাহলে এ আর্টিকেলটি পড়ুন। কারণ এ আর্টিকেলটিতে আমি রিয়েল এস্টেট ব্যবসা কী উপায়ে শুরু করে সফলতার মুখ দেখা সম্ভব সে সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ ৬টি পরামর্শ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করবো।

১. অল্প পরিসরে শুরু করুন: আপনি যদি রিয়েল এস্টেট শিল্পের একজন উদ্যোক্তা হতে চান, তবে প্রাথমিকভাবে অল্প পরিমাণ মূলধন বিনিয়োগ করে রিয়েল এস্টেট ব্যবসার কাজ শুরু করে দিন। অভিজ্ঞতা অর্জন করা ব্যতীত কখনোই আপনি আপনার সমস্ত মূলধন প্রাথমিক অবস্থায় বিনিয়োগ করবেন না।

প্রথমদিকে আপনি কারো বাসা মেরামতের কাজ কিংবা একটি ছোট ফ্ল্যাট বা দোকান নির্মাণের কাজ দিয়ে রিয়েল এস্টেট শিল্পে পদার্পণ করতে পারেন। আর আপনার পুঁজি যদি নিতান্তই কম হয়, তবে কোনো বড় আকারের রিয়েল এস্টেট কোম্পানির সাথে যে কোনোভাবে সম্পৃক্ত হওয়ার চেষ্টা করুন।

কারণ রিয়েল এস্টেট শিল্পে সফলতা অর্জন করতে হলে আপনাকে প্রচুর অভিজ্ঞ হতে হবে, অভিজ্ঞতা ছাড়া আপনি কোনো ভাবেই রিয়েল এস্টেট শিল্পে ঠিকে থাকতে পারবেন না। আপনি যদি অভিজ্ঞতা ছাড়াই বড় ধরনের কোনো প্রকল্প হাতে নেন, তবে বড় আকারের ক্ষতির সম্মুখীন হতে পারেন, এমনকি পুঁজি হারিয়ে আপনার রিয়েল এস্টেট জগতে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার স্বপ্ন দেখাও চিরতরে বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

তাই প্রাথমিকভাবে অল্প পরিসরে কাজ শুরু করুন। তারপর যখন অভিজ্ঞতা বাড়তে থাকবে, তখন আস্তে আস্তে মূলধনের পরিমাণও বৃদ্ধি করতে থাকবেন। এভাবে একদিন দেখবেন আপনি নিজেই কোনো বিখ্যাত রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠানের মালিক হয়ে উঠেছেন।

২. চিন্তা ও স্বপ্নকে বড় করুন: রিয়েল এস্টেট শিল্পে প্রতিষ্ঠিত হতে হলে আপনাকে বড় বড় স্বপ্ন দেখতে জানতে হবে। এ রিয়েল এস্টেট শিল্পে আপনার মূলধন কম কিংবা বেশি সেটা যতটা না বিবেচ্য বিষয়, তার চেয়ে বেশি মূখ্য বিষয় হয়ে উঠে আপনি কতো বড় বড় চিন্তা করতে ও স্বপ্ন দেখতে পারেন।

রিয়েল এস্টেট শিল্পের অনেক সফল উদ্যোক্তাকেই দেখা যায়, যারা নামেমাত্র পুঁজি নিয়ে ব্যবসা শুরু করেছিলেন, কিংবা কেউ কেউ এমনও আছে যে কর্মী হিসেবে কোনো রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠানে কাজ শুরু করেছিলেন; আর এখন নিজেই কোনো রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠানের মালিক হয়ে গেছেন। এসব সফল উদ্যোক্তাদের বিভিন্ন বক্তব্য পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, এরা প্রত্যেকেই বড় বড় চিন্তা করতে ও স্বপ্ন দেখতে পারতেন।

৩. অর্থনীতির জ্ঞান অর্জন করুন: আপনার যদি অর্থনীতি বিষয়ে নূন্যতম কোনো জ্ঞান না থাকে তবে রিয়েল এস্টেট শিল্পে সফলতা পাবেন না। লাভ, ক্ষতি ও হিসাব নিকাশ সম্পর্কীয় বিষয়ে আপনি যত বেশি দূরদর্শিতা দেখাতে পারবেন, তত বেশি সফলতা অর্জন করতে পারেন। ধরুন, আপনি একটি ফ্ল্যাট তৈরির প্রকল্প হাতে নিবেন।

এখন আপনাকে অর্থনীতির জ্ঞানকে কাজে লাগিয়ে হিসাব বের করতে হবে, এ প্রকল্পে কত পরিমাণ খরচ হতে পারে, প্রকল্পে কাজ শুরু আগেই আপনাকে খরচ সম্পর্কে ধারণা করতে পারতে হবে। সঠিক হিসাব বের করতে না পারলে লাভ তো করতেই পারবেন না, এমনকি মূলধনও হারিয়ে ফেলতে পারেন।

আবার কোনো প্রকল্পের কাজ নাও পেতে পারেন, কারণ আপনি যদি মাত্রাতিরিক্ত অর্থ দাবি করেন, তাহলে কেউই আপনাকে দিয়ে কোনো প্রকল্প নির্মাণ করাবে না। তাই রিয়েল এস্টেট শিল্পে উদ্যোক্তা হতে চাইলে অর্থনীতি বিষয়ে বাস্তব জ্ঞান অর্জন করুন।

৪. আগে শিখুন তারপর উপার্জন করুন: আপনি যদি ভাবেন রিয়েল এস্টেট শিল্পে কাজ শুরু করেই আপনি প্রচুর উপার্জন করবেন, তাহলে আপনার এ ভাবনা কল্পনাতেই থেকে যাবে। আপনাকে আগে কাজ শিখতে হবে, তারপর উপার্জন করার কথা চিন্তা করতে হবে।

রিয়েল এস্টেট শিল্পের কর্মকান্ড সম্পর্কে আপনার ভালো ধারণা না হওয়া পর্যন্ত আপনার তেমন অর্থ উপার্জন করার সুযোগ তৈরি হবে না। তাই কাজ শিখুন ও অভিজ্ঞতা অর্জন করুন, দেখবেন আপনি ক্রমশ সফলতা পাচ্ছেন।

৫. আজই শুরু করুন: আপনি যদি চিন্তা করেন, আপনার তো কোনো অভিজ্ঞতা নেই, তাহলে কীভাবে ব্যবসা শুরু করবেন, কিংবা যদি ভাবেন কোনো রিয়েল এস্টেট কোম্পানির সাথে সম্পৃক্ত থেকে পরিপূর্ণ অভিজ্ঞতা অর্জন করে তবেই নিজস্ব কোম্পানি গড়ে তোলার প্রতি মনোনিবেশ করবেন; তাহলে আপনি কোনোদিনই আপনি নিজস্ব রিয়েল এস্টেট প্রতিষ্ঠান গড়ে সফলতা দেখতে পারবেন না।

আপনাকে আজই আপনার প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার কাজে নেমে পড়তে হবে। আপনাকে কাজ করার মাধ্যমেল আস্তে আস্তে শিখতে হবে ও অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। কেউই পরিপূর্ণ অভিজ্ঞতা নিয়ে ব্যবসা শুরু করে না, বরং সঠিক উপায়ে ব্যবসা করতে করতে ক্রমাগত অভিজ্ঞতা ও সফলতা অর্জন করে থাকে।

৬. লাভের প্রতি লক্ষ্য রাখুন: ব্যবসা শুরু করার প্রথম থেকেই আপনাকে লাভ করার প্রতি বিশেষ দৃষ্টি রাখতে হবে। বিশেষ করে ব্যবসার প্রথম দিকে কোনোভাবেই ক্ষতি হতে পারে এমন ধরনের কাজ করা থেকে বিরত থাকুন। কারণ প্রাথমিক অবস্থাতেই যদি ক্ষতির সম্মুখীন হন, তবে ব্যবসাটিকে সামনের দিকে বেশিদূর এগিয়ে নিয়ে যেতে পারবেন না।

প্রথম দিকে যদি তেমন লাভ নাও হয়, খেয়াল রাখবেন কোনোভাবেই যেনো ক্ষতির সম্মুখীন না হতে হয়। তারপর ধীরেধীরে লাভ করার প্রতি বিশেষ মনোযোগ দিন। কারণ আপনার ব্যবসা করার অন্যতম উদ্দেশ্যই হলো সফলতা অর্জন করা। আর ব্যবসায় লাভ না করতে পারলে, কখনোই সফল উদ্যোক্তা হিসেবেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবেন না।

এ ৬ টি পরামর্শই রিয়েল এস্টেট শিল্পে উদ্যোক্তা হতে চায় এমন একজন ব্যক্তির নিকট নিঃসন্দেহে গুরুত্বপূর্ণ দিকনির্দেশনা। কারণ এ পরামর্শগুলোর প্রতি খেয়াল রেখে যেকোনো ব্যক্তি রিয়েল এস্টেট শিল্পে উদ্যোক্তা হওয়ার স্বপ্ন দেখতে পারেন। তথ্যসূত্র: ইয়ুথ কার্নিভাল

More News Of This Category