1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

সফল হতে চাইলে ধৈর্য্য থাকা চাই

আমরা জীবনে বড় কিছু করতে চাই কিন্তু পরিশ্রম করতে চাই না। আমরা সফল হতে চাই কিন্তু ধৈর্য্য ধরতে চাই না। আসলে সমস্যাটা হলো আমরা চাই ঠিকই কিন্তু চাওয়ার মত করে চাই না। বলতে পারেন ব্যাপারটা এমন যে পেলে ভাল না পেলে তো কপালে ছিল না। অন্যের সফলতা দেখে হিংসাত্বক হয়ে উঠি আবার নিজের সফলতায় তুষ্ট হতে পারি না। সত্যি বলতে আমরা কি চাই সেটাই জানি না।

হ্যা পাঠক এটাই আমাদের বর্তমান চিত্র। এখানে প্রতিদিন হরহামেশা আমরা নানা রকম অজুহাতের মধ্য দিয়ে যাই। সমস্যার মুলে খুজতে গেলে দেখা যায় আমরা খুব সহজে হতাশাগ্রস্থ্য হয়ে পড়ি। ভুলে যাই এ পৃথিবীতে যা কিছু অর্জন তা আসলে খুব সহজে আসে না। আমাদের দৈনন্দিন পছন্দের তালিকায় সবচেয়ে বেশী যা আছে তা অন্যের সমালোচনা। সত্যি বলতে গল্প আর আড্ডাবাজ বাঙালী এখনও সময়ের মূল্য বুঝতে শিখেনি।

যে কোন কিছুর ব্যাপারে আমাদের প্রত্যাশা থাকে বিশাল কিন্তু পদক্ষেপ এতটাই ছোট হয় যা আসলে চোখে পড়ার মত নয়। বলতে পারেন এতটা সহজে হাপিয়ে উঠি যে দৌড় শুরুর পূর্বেই শরীর থেকে ঘাম ঝড়বে সে চিন্তায় দৌড়টা শুরুই করি না। ব্যবসা বলেন আর চাকরী পরিশ্রম কোনটাতেই কম নয়। যদি প্রত্যাশা থাকে চাকরীর তবে যোগ্যতার চেয়েও বেতনের অংকটা বড় হওয়া চাই। আর ব্যবসা হলে প্রত্যাশা রাতারাতি সফল কোটিপতি হবার অথচ ব্যবসার ছোট্ট সাধারন কৌশলও অজানা।

আচ্ছা আপনার কি জানা আছে কোন ব্যবসায় বিনা পরিশ্রমে রাতারাতি সফল হয়ে কোটি কোটি টাকা অর্জন সম্ভব? কি চিন্তায় পড়ে গেলেন এমন ব্যবসাও আছে কি? পাঠক চমকে যাবেন না। আমি আপনাকে জানাচ্ছি সে ব্যবসার কথা। মাঝে মাঝে স্বপ্ন দেখা হয় তো। একটু কষ্ট করে সেখানেই দেখে নিবেন। যতক্ষণ আপনি বাস্তবতায় ফিরতে না পারছেন পেটের ক্ষুধা আর আপনাকে ভুলে যাওয়া পৃথিবীর মানুষগুলোর চেহারা দেখতে না পারছেন ততক্ষণ অবশ্য আমার কথাগুলো আপনার কর্ণকুহর ভেদ নাও করতে পারে।

কখনো মানুষের অবহেলার পাত্র না হলে বুঝতে পারবেন না এই পৃথিবী কত কঠিন জায়গা। এখানে অর্থ আপনার মাপকাঠি। আপনার পকেটে অর্থ আছে তো আপনার জন্য পৃথিবীটা সহজ। অর্থ নেই তো পথের ধারে পড়ে থাকলেও কেউ জিজ্ঞাসা করবে না আপনি খেয়ে আছেন না কি না খেয়ে আছেন। বরং পথের ধারে পড়ে থাকলে মানুষের চলার পথের লাথি জুটবে কপালে।

এই দেখুন না বাঙালীর যা স্বভাব। কাজের কথায় না এসে আশেপাশে দিয়ে ঘুরাঘুরি করছি। অর্থ ছাড়া যেহেতু পৃথিবী আমাকে ভুলেই যাবে তাহলে অর্থ কিভাবে আসবে? বেশীরভাগ মানুষেরই এই একটা কৌতুহল কিভাবে অর্থ আসবে? আমি তো জানি অর্থ খুব সহজে আসে তবে সবার জন্য নয়। অর্থ উপার্জনের সবচেয়ে সহজ উপায় নিজেকে দক্ষ করে তোলা। আপনি দক্ষ হলে আপনি চাইলেও কাজ আপনাকে বসে থাকতে দিবে না।

আপনি চাকরী করবেন? দক্ষতা থাকতে হবে। এটা মনে রাখুন ক্ষেত্র বিশেষ সার্টিফিকেট আপনার দক্ষতা প্রমাণ করে না। সার্টিফিকেট দ্বারা আপনাকে প্রাথমিক মূল্যায়ন করলেও পরবর্তী মূল্যায়ন হয় আপনার কাজের দক্ষতার উপর। যে প্রতিষ্ঠান আপনাকে চাকরী দেয় আপনার সার্টিফিকেট সে প্রতিষ্ঠানের নিশ্চিত কোন কাজে আসে না। বরং আপনার দক্ষতা যতটা তারা কাজে লাগাতে পারে ততটা লাভবান হয়।

আমরা চাই অনেক টাকা উপার্জন করতে কিন্তু পরিশ্রম আর অজুহাতও দেখাতে চাই। জীবন থেকে কয়েকটি বছর অজুহাতকে বিদায় দিয়ে নিজেকে দক্ষ হিসেবে গড়ে তোলার চেষ্টা করুন। প্রতিদিন কিছু না কিছু নতুন শেখার চেষ্টা করুন। দেখবেন আপনার জানার পরিধি বেড়ে চলছে। আপনি দিন দিন দক্ষ হয়ে উঠছেন। বই পড়ুন। প্রচুর পরিমানে পড়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

প্রতিদিন ৮৬ হাজার ৪০০ সেকেন্ড আপনার জীবন থেকে চলে যাচ্ছে। একটু একটু করে জীবন থেকে সময় ফুরিয়ে যাচ্ছে। আপনি মৃত্যুর দিকে এগিয়ে চলেছেন। আপনার এই সময়গুলোকে কাজে লাগান। নিজেকে যোগ্য করে গড়ে তুলুন। ধৈর্য্যধারন করুন। সফলতার দেখা ঠিক সময়েই মিলে যাবে। আনন্দময় করে তুলুন আপনার চারপাশ। শুভকামনা রইল আপনার এগিয়ে চলার পথে।

লেখক: মোঃ মাসুদুর রহমান (মাসুদ), উদ্যোক্তার খোঁজে ডটকম।

More News Of This Category