1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

সর্বপ্রথম পোর্টেবল দ্বীপ!

যারা বিশাল ধনী ব্যক্তি তারা চাইলেই এখন একটি ব্যক্তিগত দ্বীপের মালিক হতে পারবেন। শুধু পছন্দের লোকেশন জানিয়ে দিলেই তৈরি করা দেয়া হবে আপনার ব্যক্তিগত দ্বীপ। এমনটি স্বপ্ন মনে হলেও এখন আর তা স্বপ্ন নয়। কারণ বাস্তবেই জানা গেছে বিশ্বের প্রথম পোর্টেবল দ্বীপ তৈরির পরিকল্পনার কথা।

এই পরিকল্পনা অনুযায়ী দ্বীপগুলো হবে পরিবেশ বান্ধব এবং নিজে নিজেই টিকে থাকতে সক্ষম। ফলে যারা অত্যন্ত ধনী, তারা পৃথিবীর যেকোন স্থানে তাদের অবসর যাপনের স্থান তৈরি করে নিতে পারবে।

দ্বীপের প্রতিটি বাড়ি তার গ্রাহকের সুযোগ-সুবিধায় পরিপূর্ণ থাকবে। যেমন সুইমিং পুল, নৌকার পোতাশ্রয়, সবুজ বাগান এসব কিছুই থাকবে সেখানে। এছাড়া প্রতিটি দ্বীপের পরিবেশগত প্রভাব সর্বনিম্ন পর্যায়ে রাখতে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে।

এই পরিকল্পনা বা উদ্যোগের পেছনে রয়েছে আমিল্লারাহ প্রাইভেট আইল্যান্ড। এর তত্ত্বাবধানে রয়েছে ডাচ ডকল্যান্ডস নামের একটি নির্মাণ (ভাসমান স্থাপনা) কোম্পানি। যারা আপনাকে যেকোন আকার ও আকৃতির দ্বীপ অফার করবে।

ডাচ ডকল্যান্ডস এই প্রোজেক্টের জন্য ক্রিস্টিস ইন্টারন্যাশনাল রিয়াল এস্টেটের সঙ্গে জোটবদ্ধভাবে কাজ করছে।

ক্রিস্টিস ইন্টারন্যাশনাল রিয়াল এস্টেটের প্রধান নির্বাহী ড্যান কন বলেন, ‘সত্যি সত্যিই পানির উপর ব্যক্তিগত দ্বীপ তৈরির সুযোগ এই ক্ষেত্রে ডাচ ডকল্যান্ডসের দক্ষতার প্রমাণ বহন করে।’

তিনি বলেন, ‘বিস্তৃত পরিসরের বিভিন্ন লোকেশনে ক্রেতারা তাদের বাসস্থানের আকার, আকৃতি ও ধরণ পরিবর্তন করতে পারবে। শুরুতেই মালদ্বীপে তারা এই সুযোগ পেতে যাচ্ছে।’

কোম্পানিটি ইতোমধ্যে মালদ্বীপ সরকারের সহায়তায় ১০টি স্থাপনা তৈরির কাজ শুরু করেছে। দ্বীপগুলোর ডিজাইন করেছেন বিখ্যাত ডাচ আর্কিটেক্ট কোয়েন অলথিয়াস।

পৃথিবীর যেকোন স্থানে দ্বীপ তৈরির কথা বললেও সংশ্লিষ্ট দেশের জলসীমায় এরূপ স্থাপনা নির্মাণের অনুমতি বা আইনগত দিক সম্বন্ধে কোন কিছু জানায়নি কোম্পানিটি।

More News Of This Category