1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

সহজ উপায়ে ইনকাম বাড়ান!

মাসের শেষের দিকে গিয়ে আমাদের মনে হয় যদি মাস্তি তাড়াতাড়ি শেষ হয়ে যেত তাহলে ভালো হতো। আপনিও যদি এই সমস্যায় পড়ে থাকেন তাহলে, আপনি কিভাবে আপনার ইনকাম বাড়াবেন। তাইলে এই টিপস গুলো ফলো করুন। ইনভেস্টমেন্ট, রেকারিং একাউন্ট, লক্ষী ঘট কত ভাবেই না আমরা টাকা জমানোর চেষ্টা করি। কিন্তু প্রথম দুটির বেলায় এটি কাজ করলেও লোকে বলে এতটা কাজে আসে না।

মাস শেষে আমাদের মনে হয় মাসটা যদি দ্রুত চলে যেত তাহলে ভালই হতো। কিন্তু এমনটা হবে না যদি আপনি নিচের নিয়মগুলো মেনে চলেন। চলুন এমন কয়েকটি নিয়ম সম্পর্কে জেনে নেই। কোন খাতে কত টাকা ব্যয় করতে চান বা প্রয়োজন আগে সেটা ভেবে নিন। টাকা জমাতে হবে ভাবলে যে তা হয়ে যাবে এমনটি কিন্তু তা নয়।

ঠিক কত টাকা জমালে মাসের শেষে আপনার উপরে কোন প্রভাব পড়বে না প্রথমে এটি সেভ করে নিন। তারপরে আস্তে আস্তে সেই জমানোর এক টাকা বাড়িয়ে নিন। মাসে আপনার কত টাকা খরচ হয় সেটা তারই হিসাব করে নিন। মাসে যে খরচগুলো না করলেই নয় সেগুলো একটা আলাদা হিসাব করে নিন।যে খরচগুলো না করলেই নয় সেটি বাদ দিয়ে আপনার অন্যান্য খাতে খরচ কম করার চেষ্টা করুন।

খরচ করার পরে যা থাকে তার থেকে অনেকেই সঞ্চয় করে থাকেন। আপনি এটা না করে প্রথমে আপনার ফোন ৬ টা আলাদা করে রাখুন তারপরে যে টাকা থাকবে আপনি কি আপনি আপনার খরচ করুন। ব্যাংকে টাকা রাখা মানেই সব সময় সঠিক তা কিন্তু নয়। ব্যাংকের হাজার টাকা রাখার পরিবর্তে আপনি আপনার সঞ্চারের টাকাগুলো ভেবেচিন্তে এক জায়গায় ইনভেস্ট করুন। এর হলে আপনি আরো বেশী লাভবান হতে পারবেন।

বন্ধুদের সাথে বাইরে গিয়ে আনন্দ করতে সবারই ভালো লাগে। কিন্তু এই আনন্দ টি যদি আপনি ঘরে বসে আমাদের সবাই মিলে করতে পারেন তাহলে আপনার সাশ্রয় আরো বেশি হবে। তিন দিনের জন্য একটা পরীক্ষা নিন। এখন অনলাইনে কেনাকাটা করতে প্রত্যেকেই পছন্দ করে। প্রয়জনীয় জিনিস বাদ দিয়ে অন্য কিছু কেনা হলে।

সেটি অর্ডার না দিয়ে শপিং কার্ড এ রেখে দিন। পরবর্তীতে আপনি হয়তো তিনদিন পরে ভুলে যাবেন যে জিনিসটা আপনার ইচ্ছা ছিল। আপনি যদি ঘরে বসে অনলাইনে কেনাকাটা করতে ভালবাসেন তাহলে এটি ছেড়ে দিন। ই এর চাইতে আপনি কয়েকটি শপিংমল ঘুরে ঘুরে ওই জিনিসটা এর দরদাম করে কিছু কম দামে কিনতে পারবেন এতে আপনার কিছু টাকা সাশ্রয় হবে।

More News Of This Category