১৩ ডিজিটের ভ্যাট নিবন্ধণ নাম্বার ছাড়া এলসি খোলা যাবে না

ভ্যাট আদায় কার্যক্রম চলমান রাখতে ১৩ ডিজিটের নিবন্ধন নম্বর ছাড়া ঋণপত্র খোলা যাবে না বলে ব্যাংকগুলোকে জানিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। ভ্যাট নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানসমূহের ডেটাবেইজ হালনাগাদ করার জন্য জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) অনুরোধে এ নির্দেশন‍া দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংক এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করে বৈদেশিক মুদ্রা লেনদেনে নিয়োজিত ব্যাংকগুলোর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাদের কাছে পাঠিয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ভ্যাট নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানসমূহের ডেটাবেইজ হালনাগাদ করার জন্য করদাতাদের পুরাতন ১১ ও নয় ডিজিটের মুসক নিবন্ধন সংখ্যার পরিবর্তে ১৩ ডিজিটের নিবন্ধন নম্বর গ্রহণ করতে গণমাধ্যমে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হয়।

১৩ ডিজিটের নিবন্ধন সংখ্যার প্রথম নয় ডিজিট ব্যবসা শনাক্তরণ ও পরবর্তী চার ডিজিট ব্যবসাস্থলের ঠিকানা পরিবর্তনের সঙ্গে পরিবর্তনশীল। নতুন নিবন্ধন সংখ্যা গ্রহণের সময়সীমা ছিল চলতি বছরের ১৪ আগস্ট পর্যন্ত। তাতে উল্লেখযোগ্য সাড়া পায়নি এনবিআর।

এখন পর্যন্ত ১৩ ডিজিটের নিবন্ধন নম্বর না নেওয়ায় ভ্যাট আদায় কার্যক্রম বিঘ্নিত হচ্ছে। নতুন নম্বর না নিলে অনলাইনে মাসিক রির্টান দাখিলও সম্ভব না। এদিকে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোও ১৩ ডিজিটের নম্বর ছাড়াই বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের ঋণপত্র (এলসি) খুলছে। যা পরবর্তীতে জটিলতা সৃষ্টি করবে।

তাই সব পক্ষের বাস্তবতা বিবেচনা করে চলতি বছরের ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত ১৩ ডিজিটের নিবন্ধন নম্বর গ্রহণের সময়সীমা নির্ধারণ করেছে এনবিআর। এ সময়ের পরে ১৩ ডিজিটের নম্বর ছাড়া কোন প্রতিষ্ঠানের ঋণপত্র না খুলতে ব্যাংকগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

SHARE