২০ হাজার টাকা ইনভেস্ট করে মাসে ২০ হাজার টাকা আয়ের ব্যবসা

বন্ধুরা আজকের পোষ্টে আমি বাংলাদেশের একটি প্রচলিত ব্যবসাকে ভিন্ন ভাবে উপস্থাপন করবো। বাংলাদেশে এখন LED লাইট প্রচুর পরিমাণে বিক্রি হচ্ছে। বর্তমানে বাজারে LED লাইট এর ব্যপক চাহিদা রয়েছে। বাড়িতে অফিসে LED লাইটের ব্যবহার দিন দিন বেড়ে চলেছে। ঢাকার কাপ্তান বাজারে এসব লাইট তৈরি করে বিক্রি করা হয়।

আমি এসব মার্কেট ঘুরে আপনাদের জন্য আজকে বিস্তারিত আইডিয়া দেয়ার চেষ্টা করবো।আশা করি শেষ পর্যন্ত পড়বেন। প্রথমেই বলে নেই এই ব্যবসাতে যেমন লাভ রয়েছে তেমনি সঠিক পরিকল্পনার না করলে লোকসানের সম্মুখীন হতে হয়।

কি ভাবে শুরু করবেন? এই ব্যবসাটি আপনি প্রথমত দুই ভাবে শুরু করতে পারেন। নিজে উৎপাদন করে অথবা অন্যের কাছ থেকে কিনে এনে। আজকের আমি কিভাবে নিজে উৎপাদন করতে পারেবন তা নিয়ে আলোচনা করবো।

প্রয়োজনীয় উপকরন: আপনি প্রথম অবস্থায় এলেডি লাইট কোন পরিচিত ডিলার এর কাছ থেকে ক্রয় করে ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে আপনি যদি মনে করেন যে আপনি নিজে তৈরি করে বিক্রয় করবেন তাহলে কিছু খুচরা যন্ত্রাংশ লাগবে। এগুলি মূলধন যন্ত্রাংশ। এসব দিয়ে আপনি সবসময় কাজ চালিয়ে নিতে পারবেন।

সোল্ডারিং আয়রন ২০০ থেকে ২৫০ টাকা। স্কু ৫০ থেকে ১০০ টাকা। মাল্টি মিটার ২৫০ থেকে ৩০০ টাকা। প্লাস ১০০ টাকা কাটিং প্লাস ২০০ টাকা। মোটামুটি ১০০০ টাকার মূলধন যন্ত্রাংশ হলেই চলবে। কিন্তু ব্যবসার পরিধি বাড়লে আপনার এসব মূলধন যন্ত্রাংশ বাড়াতে হবে। কারণ উপরের মূলধন যন্ত্রাংশ দিয়ে কেবল একজন কাজ করতে পারবে।

এচাড়া LED লাইট তৈরিতে LED লাইটের খুচরা যন্ত্রাংশ লাগবে। এর মধ্যে এলিডি লাইটের বডি, এলিডি লাইটের লেন্স, এলিডি লাইটের ডক্সসিন্ট প্লেট, ক্যাপ, লিড ড্রাইভ বা কন্ট্রোল সার্কিট বিভিন্ন মানের হতে পারে, আপনার চাহিদা আনুযায়ী ভিবিন্ন ভোল্টের এলিডি লাইট।

এগুলো একটি LED লাইটের ফুল সেট ২৫ থেকে ৩০ টাকার মধ্যে পেয়ে যাবেন। তবে আপনি যদি গ্যারান্টি সহ বিক্রয় করেন তাহলে ৭০ থেকে ৭৫ টাকা দিয়ে ফুল সেট ক্রয় করতে হবে। গ্যারান্টি ছাড়া ১ টি এলইডি লাইট তৈরি করতে আপনার মোট খরচ হবে ৩২ থেকে ৩৪ টাকা এবং মোট পেকিজিং মিলিয়ে আপনার খরচ হতে পারে ৩৬ টাকা।

গ্যারান্টি সহ ১ টি এলেডি লাইট তৈরি করতে আপনার মোট খরচ হবে ৮০ থেকে ৯০ টাকা এবং মোট প্যাঁকিজিং মিলিয়ে আপনার খরচ হতে পারে ৯৫ টাকা। তবে বেশি পরিমানে তৈরি কররলে এলেডি লাইটের রমেটিরিয়াল আরো কম দামে আপনি আনতে পারবেন।

কোথায় পাবেন LED লাইটের খুচরা যন্ত্রাংশ? ঢাকার কাপ্তান বাজার এলাকায় এসবের প্রচুর দোকান আছে। আপনি সেখান থেকে LED লাইটের খুচরা যন্ত্রাংশ কিনতে পারবেন। কিভাবে বানাতে হয় তা নিয়েও প্রশিক্ষণ নিয়ে নিতে পারবেন। এছাড়া ঢাকার সুন্দরবন স্কোয়ার মার্কেটেও LED লাইটের খুচরা যন্ত্রাংশ বিক্রি হয়। এই দুটি মার্কেট গুলিস্তানের আসে পাশে। আপনারা গুলিস্তানে এসে জিজ্ঞাসা করলেই হবে।

বিক্রয় :-প্রথমত নিজে বিক্রি করে দ্বিতীয়ত কোন ইলেট্রিক দোকানে পাইকারী দরে দিতে পারেন/ তাছাড়া আপনি অনলাইনেও বিক্রি করতে পারেন। এর পর যখন আপনার এই এলইডি লাইটের জনপ্রিয়তা ব্যপক হবে তখন আপনি নিজের ইন্ডাস্ট্রি করে সারা দেশে ডিলারদের মাধ্যমে বিক্রয় করতে পারেন।

সাধারনত কোন জনকীর্ন এলাকায় বা আপনি যদি পাইকারী বিক্রয় করতে চান তাহলে আপনি আপনার নিকট বর্তী ইলেট্রিক দোকানে সেল করতে পারেন। তাবে প্রথম আবস্থায় আপনার পোডক্টটি প্রচারের জন্য কিছু লাইট ফ্রি দিতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন আপনার প্রডাক্টটি যেন মান সম্মত হয় ।

লাভ লোকসানঃ এ ব্যবসাতে লোকসান নেই, কারণ পণ্য পচে যাবার ভয় নেই। সাধারণত ওয়েরান্টি ছাড়া একটি ১৮ ওয়াটের LED লাইট বাজারে বিক্রি হয় ১২০ টাকা। আপনি ৮০ টাকা দরে উৎপাদন করে ১২০ টাকায় বিক্রি করতে পারলে আপনার লাভ হবে প্রতি LED লাইট ৪০ টাকা করে।

আপনি যদি দৈনিক ২০ থেকে ২৫ লাইট ১২০ টাকা দরে বিক্রয় করতে পারেন তাহলে দৈনিকআপনার লাভ হবে ৮০০ টাকা খরচ বাদে। এভাবে যদি আপনি বিক্রয় করতে পারেন তাহলে আপনার প্রতি মাসে আয় হবে ১৫ হাজার থেকে ২০ হাজার টাকা। তাবে আপনার প্রচারের উপর বিক্রয় আরো বাড়াবে।

তবে সিক্রেট কথা হলো গ্যারান্টি করা লাইট ফেরত নিলেও সেগুলি আপনি অল্প খরচে ঠিক করে নিতে পারবেন। তবে LED লাইট সাধারনত নষ্ট হয় না। এর ভিতরে একটিকন্টল সার্কিট নষ্ট হয়। এটি সমান্য টাকাতে ঠিক করতে পারবেন। আনেক সময় কানেসন লুজ হলেও লাইট টি নষ্ট হতে পারে। এ ক্ষেত্রে ঠিক করতে কোন খরচ হবে না।

কত টাকা ইনভেস্ট করবেন? প্রথম আবস্থায় আপনি ১০০ থেকে ১৫০টি এলেডি লাইট দিয়ে শুরু করতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার ইনবেস্ট করতে হবে : লাইট বাবদ ১৫০০০ টাকা মেশিন বাবদ ২০০০ টাকা অন্য অন্য খরচ ৩০০০ টাকা প্রাথমিক ইনভেস্ট ২০ হাজার টাকা হলেই চলবে। তাবে ব্যবাসার প্রসার হলে আরো ইনভেস্ট করতে হবে।

কিভাবে ব্যবসার প্রসার করবেন: আপনি যদি মার্কেটে ভালো সাড়া পান তাহলে আপনি এই আপনি লোক নিয়োগ করতে পারেন এবং আরো কম রেটে পণ্য উৎপাদন করতে পারবেন। তবে খেয়াল রাখবেন আপনার পুজি যেন ঠিক থাকে। এভাবে যদি আপনি চালাতে পারেন তাহলে আপনি সেখান থেকে অনায়াসে ৫০ থেকে ৬০ হাজার টাকা প্রতি মাসে অনায়াসে আয় করতে পারবেন।

ব্যবসাটি শুরুর পূর্বে আপনার আশে পাশের এরকম অভিজ্ঞ ব্যবসায়ীর পরমর্শ নিবেন। তবে পন্যটি কখনো অন্যের নামে মার্কেটে ছাড়বেন না। সুন্দরবন স্কোয়ার মার্কেটের ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করবেন।

SHARE