1. [email protected] : editorpost :
  2. [email protected] : jassemadmin :

ভারত ভ্রমনে বাংলাদেশীদের দায়িত্ব নেবে না ভারতীয় কর্তৃপক্ষ

নাগরিকত্ব সংশোধন আইন নিয়ে গত কয়েকদিন থেকে উত্তাল হয়ে উঠেছে ভারত। এরই প্রেক্ষিতে আইনটির বিরোধিতা করে ভারতের উত্তর পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য আসামের রাজধানী গৌহাটিসহ পুরো রাজ্য জুড়ে প্রতিবাদ ও বিক্ষোভে নামে হাজার হাজার মানুষ।

বিক্ষোভ ঠেকাতে আসামের বিভিন্ন স্থানে কারফিউ জারি করা হয়। একই ইস্যূতে হাজারও মানুষ শিলংয়ে রাস্তায় বিক্ষোভে নামে। বিক্ষোভ সামাল দিতে আসামের পর অনির্দিষ্ট কালের জন্য কারফিউ জারি করা হয় বাংলাদেশের সীমান্ত ঘেষা রাজ্য মেঘালয়ে।

ফলে নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনা করে সকাল থেকে ভারতীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ডাউকি বর্ডার দিয়ে বাংলাদেশ থেকে পর্যটক ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে পূর্ব ঘোষণা ছাড়াই তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে ভারত ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করায় বিপাকে পড়েন বাংলাদেশি পর্যটকরা। শুক্রবার দুই শতাধিক পর্যটক তামাবিলে এসে ভারতে যেতে না পেরে ফিরে যান।

একদিন বন্ধ থাকার পর সাড়ে ১১টার দিকে পর্যটকদের ভ্রমণের জন্য ডাউকি বর্ডার খুলে দিয়েছে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ। বর্ডার খুলে দেয়ার পর সিলেট সীমান্তের তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে পূণরায় পর্যটকদের যাতায়ত শুরু হয়েছে।

তবে বর্তমান পরিস্থিতে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশ থেকে ভারতে ভ্রমণে যাওয়া পর্যটকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবেনা। এ ক্ষেত্রে পর্যটকরা তাদের নিজ দায়িত্বে ভারত ভ্রমণে যেতে পারবেন বলে ভারতীয় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পক্ষ থেকে বাংলাদেশের ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে তামাবিল ইমিগ্রেশন পুলিশের ইনচার্জ এসআই মওদুদ আহমেদ রুমি জানান, বেলাসাড়ে ১১টার দিকে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ পর্যটকদের পাঠানোর অনুমতি দিয়েছে। তবে নিজ দায়িত্বে পর্যটকদের ভারতে যেতে হবে। বর্তমান পরিস্থিতিতে পর্যটকদের নিরাপত্তার দায়িত্ব নেবেনা ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।

ডাউকি বর্ডার খুলে দেয়ার পর এ প্রতিবেদন লেখার সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৫টা পর্যন্ত তামাবিল ইমিগ্রেশন দিয়ে ৩০জন পর্যটক ভারত ভ্রমণে গেছেন। একই সাথে ভারতে ভ্রমণ শেষে ৫০ জন পর্যটক এই বর্ডার দিয়ে বাংলাদেশে এসেছেন। স্বামী-সন্তানসহ স্ব-পরিবারে সপ্তাহখানেকের জন্য ভারত ভ্রমণে গিয়ে ছিলেন সিলেটের উপশহর এলাকার ডা. জহুরা বেগম।

কিন্তু শিলংয়ে পৌছা মাত্রই সেখানে শুরু হয় বিক্ষোভ। জারি করা হয় কারফিউ। সেই আতঙ্কে মাত্র দুই দিনের মাথায় তিনি বিকেলে স্ব-পরিবারে দেশে চলে এসেছেন। দেশে ফিরে তামাবিল ইমিগ্রেশনে বিকেলে সাংবাদিকদের একথা জানান তিনি।

উল্লেখ্য, নাগরিকত্ব আইন নিয়ে উত্তাল হয়ে উঠেছে ভারত। প্রতিবাদ-বিক্ষোভের মুখে আসামের পর মেঘালয় রাজ্যে কারফিউ জারি করা হয়েছে। নিরাপত্তার স্বার্থে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ শুক্রবার সকাল থেকে সিলেট সীমান্তের ডাউকি বর্ডার দিয়ে বাংলাদেশি পর্যটকদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে। তথ্যসূত্র: সিলেট সান ডটকম।

More News Of This Category